خبرگزاری شبستان

سه شنبه ۲۲ آیان ۱۳۹۷

الثلاثاء ٥ ربيع الأوّل ١٤٤٠

Tuesday, November 13, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Wednesday, September 14, 2016 নির্বাচিত সংবাদ : 24606

সৌদি আরব ওহাবি আদর্শের নামে বিদ্বেষ ও সন্ত্রাসবাদের বিস্তার ঘটাচ্ছে: জারিফ
স্পেশাল ডেস্ক: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, ইসলামের নামে সন্ত্রাসীরা মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকায় যে হত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞ চালাচ্ছে তা মূলত ওয়াহাবি মতবাদ থেকে উৎসাহিত হয়েছে। এ মতবাদ প্রকৃতপক্ষে ঘৃণা ও চরমপন্থা ছড়িয়ে দেয় যা সৌদি আরবের ভেতরে ব্যাপকভাবে চর্চিত হয়ে আসছে।

সৌদি আরব ওহাবি আদর্শের নামে বিদ্বেষ ও সন্ত্রাসবাদের বিস্তার ঘটাচ্ছে: জারিফ

 

স্পেশাল ডেস্ক: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, ইসলামের নামে সন্ত্রাসীরা মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকায় যে হত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞ চালাচ্ছে তা মূলত ওয়াহাবি মতবাদ থেকে উৎসাহিত হয়েছে। এ মতবাদ প্রকৃতপক্ষে ঘৃণা ও চরমপন্থা ছড়িয়ে দেয় যা সৌদি আরবের ভেতরে ব্যাপকভাবে চর্চিত হয়ে আসছে।

জাওয়াদ জারিফ বলেন, ওয়াহাবি আদর্শ ‘প্রাণঘাতী ফ্যাশন’ হিসেবে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী গড়ে উঠতে উৎসাহিত করছে। তবে ইরান ইস্যুকে পুঁজি করে সৌদি আরব বেশিদিন তার মিত্রদেরকে নিয়ে আর খেলতে পারবে না।

নিউ ইয়র্ক টাইমসে বুধবার প্রকাশিত এক মন্তব্য প্রতিবেদনে জাওয়াদ জারিফ জোর দিয়ে বলেন, সৌদি আরব ওয়াহাবির আদর্শের নামে ঘৃণার আদর্শ রপ্তানি করছে। আর এজন্য দেশটি দীর্ঘদিন ধরে বিপুল পরিমাণে পেট্রোডলার খরচ করে চলেছে।

জাওয়াদ জারিফ বলেন, ইসলামের নামে যেসব সন্ত্রাস হচ্ছে তার বেশিরভাগকেই ‘ওয়াহাবিজম’ বলে চিহ্নিত করা যায়। তিনি তার কলামে লিখেছেন, “আরব বিশ্বকে আরো গোলযোগের ভেতরে ঠেলে দিয়ে ইরানকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারবে বলে সৌদি আরব তার পশ্চিমা মিত্রদেরকে মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে সফলতার সঙ্গে সমর্থন আদায় করতে সক্ষম হয়েছে। এ পর্যন্ত ‘ইরান কার্ড’ খেলে সৌদি আরব তার মিত্রদের সিরিয়া ও ইয়েমেন যুদ্ধে তাদের পক্ষে নিতে পেরেছে তবে নিশ্চিতভাবে এ অবস্থার পরিবর্তন হবে। তার মিত্রদের মধ্যে এ উপলব্ধি বাড়ছে যে, সৌদি আরব স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠার দাবি করলেও উগ্রবাদকে পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে আসছে।”

ইরানের এ শীর্ষ কূটনীতিক আরো লিখেছেন, সৌদি আরবের কোনো কোনো পক্ষ নিষিদ্ধ ঘোষিত সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে ‘মধ্যপন্থি’ বলে তুলে ধরার চেষ্টা করছে যাতে পশ্চিমা ও আঞ্চলিক মিত্রদের সমর্থনে এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে গোপনে রিয়াদ সহায়তা করতে পারে। উদাহরণ হিসেবে তিরি সিরিয়ায় তৎপর আন-নুসরা ফ্রন্টের কথা তুলে ধরেন। এ গোষ্ঠী সম্প্রতি নাম পরিবর্তন করে জাবহাত ফাতেহ আশ-শাম নাম ধারণ করেছে এবং তারা নিজেরাই স্বীকার করেছে যে, আল-কায়েদার শাখা ছিল তারা। এখন এ নামে কাজ করা কঠিন বলে নাম পরিবর্তন করে জাবহাত ফাতেহ আশ-শাম নাম ধারণ করেছে।

সৌদি আরবের ঘৃণা-বিদ্বেষ ছড়ানো ওয়াহাবি মতবাদের বিরুদ্ধে সম্মিলিত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। ওয়াহাবি মতবাদের মাধ্যমে উগ্রতা ছড়িয়ে দেয়ার জন্য যেসব সব চ্যানেল দিয়ে অর্থ সরবরাহ করা হচ্ছে তাও বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া কথা বলেছেন। তিনি আরো বলেছেন, সৌদি আরবের প্রচার করা ওয়াহাবি মতবাদের ফলে শুধু খ্রিস্টান, ইহুদি ও শিয়া মুসলমানরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন না বরং মূলধারার সুন্নি মুসলমানরাও ক্ষতির শিকার। ওয়াহাবি মতবাদ ও মূলধারার সুন্নি ইসলামের সম্ভাব্য সংঘাতের কারণে মধ্যপ্রাচ্যের বাকি এলাকাগুলোও অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে বলে জাওয়াদ জারিফ সতর্ক করেন।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য