خبرگزاری شبستان

شنبه ۱ اردیبهشت ۱۳۹۷

السبت ٦ شعبان ١٤٣٩

Saturday, April 21, 2018

বিজ্ঞাপন হার

হযরত আব্বাসের আদব ও আখলাক

মাহদাভিয়াত বিভাগ: হযরত আবুল ফজলিল আব্বাস (আলাইসাল্লাম) ছিলেন আমিরুল মুমিনিন হযরত আলী (আ.)'র পুত্র তথা হযরত ইমাম হাসান ও ইমাম হুসাইন (আ.)'র সত ভাই। ২৬ হিজরির চতুর্থ শা'বান জন্মগ্রহণ করেছিলেন ইতিহাসের এই অনন্য ব্যক্তিত্ব। অনেক মহত গুণের অধিকারী ছিলেন বলে তাঁকে বলা হত আবুল ফাজল তথা গুণের আধার। চিরস্মরণীয় ও বরেণ্য এই মহামানবের জীবনের নানা ঘটনার মধ্যে রয়েছে শিক্ষণীয় অনেক দিক।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, February 27, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 25943

মৃত্যুর কথা স্মরণ মানুষকে গুনাহ থেকে বিরত রাখে
মায়ারেফ বিভাগ: মানুষ স্বভাবজাতভাবে নাফস ও প্রবৃত্তির তাড়নার শিকার। প্রবৃত্তি সব সময় মানুষকে গুনাহ এবং সীমা লংঘনের দিকে উস্কে দেয়। কিন্তু মানুষ যদি নিয়মিত মৃত্যুকে স্মরণ করে তাহলে সে সীমালংঘণ থেকে বিরত থাকতে পারবে।

মৃত্যুর কথা স্মরণ মানুষকে গুনাহ থেকে বিরত রাখে

 

মায়ারেফ বিভাগ: মানুষ স্বভাবজাতভাবে নাফস ও প্রবৃত্তির তাড়নার শিকার। প্রবৃত্তি সব সময় মানুষকে গুনাহ এবং সীমা লংঘনের দিকে উস্কে দেয়। কিন্তু মানুষ যদি নিয়মিত মৃত্যুকে স্মরণ করে তাহলে সে সীমালংঘণ থেকে বিরত থাকতে পারবে।

 

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: এ পৃথিবীতে নবী-রাসূলদের (সা.) আগমণের অন্যতম উদ্দেশ্য হচ্ছে মানুষকে পরকাল ও মৃত্যুর কথা স্বরণ করিয়ে দেয়া। আর মৃত্যুর কথা স্মরণের সবচেয়ে বড় উপরকার হচ্ছে মানুষ শয়তানি প্রতারণা ও সীমালংঘন থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে পারে।

রাসূল (সা.) একটি হাদীসে বর্ণনা করেছেন যে, যদি মানুষের জীবনে তিনটি মুসিবত না থাকতো, তাহলে সে কখনও বিনয়ী কিংবা নত হত না। তম্মধ্যে একটি হচ্ছে অসুখ কিংবা রোগ-বালাই, অভাব-অনটন। আর এ দু'টি বিপদ সত্বেও মানুষ সীমালংঘনের দিকে অগ্রসর হয়। কিন্তু মৃত্যুর কথা স্বরণ করলে মানুষের দৃষ্টিতে পৃথিবী তুচ্ছ হয়ে যায়, তখন সে সীমালংঘন থেকে বিরত থাকে।

মানুষের চোখের সামনে যখন মৃত্যু ভাসমান হবে, তখন সে আল্লাহর নেয়ামতসমূহকে ভালভাবে অনুধাবন করতে পারবে। রাসূল (সা.) আবুজারকে (আ.) উদ্দেশ্য করে বলেছেন যে, হে আবুজার! ৫টি জিনিষ তোমার জীবনে আসার আগে ৫টি জিনিষের মূল্যয়ন করবে; যথা: যৌবনকে বৃদ্ধকাল আসার পূর্বে, সচ্ছ্বলতাকে অভাব আসার আগে, সুসময়কে দু:সময়ের আগে, সুস্থ্যতাকে অসুস্থতার আগে, জীবনকে মৃত্যু আসার আগে।


ইমাম জাফর সাদিক (আ.) থেকে বর্ণিত: মৃত্যুর কথা স্মরণ করলে মানুষের প্রবৃত্তির চাহিদা নিয়ন্ত্রিত হয়, গাফিলতি থেকে নিজেকে বিরত রাখতে পারে, অন্তরকে আল্লাহর প্রতিশ্রুতিতে সিক্ত করতে পারে, উত্তেজনা থেকে বিরত থাকে, অহেতুক চাহিদা মুক্ত হতে পারে, লোভ সংবরণ করে এবং পার্থিব জীবনকে তুচ্ছ মনে করবে। (দ্র: বিহারুল আনোয়ার, খণ্ড ৬, পৃ.১৩৩)

 

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য