خبرگزاری شبستان

چهارشنبه ۷ تیر ۱۳۹۶

الأربعاء ٤ شوّال ١٤٣٨

Wednesday, June 28, 2017

বিজ্ঞাপন হার

ইরানে জার্মান যুব দম্পতির ইসলাম গ্রহণ

মায়ারেফ বিভাগ: সম্প্রতি এক জার্মান যুব-দম্পতি ইরানের ধর্মীয় নগরী কোমে একজন প্রখ্যাত আলেমের উপস্থিতিতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Wednesday, March 08, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 26011

ঐক্য ও সংহতি বজায় রাখলে ইসলামের শত্রুরা কোন অনিষ্ট করতে পারবে না
মায়ারেফ বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের মুসলিম মাযহাবসমূহের মধ্যে ঐক্য আনয়নকারি আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান হযরত আয়াতুল্লাহ আরাকি বলেছেন যে, যদি মুসলিম উম্মাহ নিজেদের মধ্যে ঐক্য ও সংহতি বজায় রাখে তবে ইসলামের শত্রুরা কোন অনিষ্ট সাধন করতে পারবে না।

ঐক্য ও সংহতি বজায় রাখলে ইসলামের শত্রুরা কোন অনিষ্ট করতে পারবে না

 

মায়ারেফ বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের মুসলিম মাযহাবসমূহের মধ্যে ঐক্য আনয়নকারি আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান হযরত আয়াতুল্লাহ আরাকি বলেছেন যে, যদি মুসলিম উম্মাহ নিজেদের মধ্যে ঐক্য ও সংহতি বজায় রাখে তবে ইসলামের শত্রুরা কোন অনিষ্ট সাধন করতে পারবে না।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: হযরত আয়াতুল্লাহ আরাকি আজ বুধবার ৮ই মার্চ এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে বলেন: আল্লাহ পবিত্র কোরআনে মুসলিম উম্মাহকে নিজেদের মধ্যে সৃদৃঢ় ঐক্য ও সংহতি বজায় রাখার আদেশ দিয়েছেন। কেননা ঐক্য মানুষকে শক্তিশালী এবং শক্তিদের বিরুদ্ধে বিজয়ী করে।

তিনি পবিত্র কোরআনের সূরা মায়েদার ৫৪ নং আয়াতটি তেলাওয়াত করেন:

«یا اَیُّهَا الَّذینَ آمَنُوا مَنْ یَرْتَدَّ مِنْکُمْ عَنْ دینِهِ فَسَوْفَ یَاْتِی اللهُ بِقَوْمٍ یُحِبُّهُمْ وَ یُحِبُّونَهُ اَذِلَّهٍ عَلَى الْمُوْمِنینَ اَعِزَّهٍ عَلَى الْکافِرینَ یُجاهِدُونَ فی سَبیلِ اللهِ وَ لا یَخافُونَ لَوْمَهَ لَآیِمٍ ذالِکَ فَضْلُ اللهِ یُوْتیهِ مَنْ یَشاءُ وَ اللهُ واسِعٌ عَلیمٌ»

অর্থাৎ: হে বিশ্বাসিগণ! তোমাদের মধ্যে কেউ যদি নিজের ধর্ম হতে ফিরে যায়, অতি শীঘ্র আল্লাহ এমন এক সম্প্রদায় আনবেন যাদের তিনি (আল্লাহ) ভালবাসেন এবং

তারাও তাঁকে ভালবাসে; বিশ্বাসীদের প্রতি বিনয়-ন¤্র এবং অবিশ্বাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর; তারা আল্লাহর পথে জিহাদ করবে এবং কোন নিন্দুকের নিন্দার ভয় করবে না। এটা আল্লাহর অনুগ্রহ, তিনি যাকে ইচ্ছা তা দান করেন, বস্তুত আল্লাহ প্রাচুর্যময়, সর্বজ্ঞ। - যখন রাসূলকে (সা.) এ আয়াতে বর্ণিত সম্প্রদায় সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়, তখন তিনি হযরত সালমান ফারসির দিকে ইশারা করে বলেন যে, সেটা হচ্ছে সালমানের সম্প্রদায়। অর্থাৎ ইরানি জাতি। কেননা হযরত সালমান ছিলেন সাহাবিদের মধ্যে একমাত্র ইরানি বংশোদ্ভুত।

615680

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য