خبرگزاری شبستان

چهارشنبه ۷ تیر ۱۳۹۶

الأربعاء ٤ شوّال ١٤٣٨

Wednesday, June 28, 2017

বিজ্ঞাপন হার

ইরানে জার্মান যুব দম্পতির ইসলাম গ্রহণ

মায়ারেফ বিভাগ: সম্প্রতি এক জার্মান যুব-দম্পতি ইরানের ধর্মীয় নগরী কোমে একজন প্রখ্যাত আলেমের উপস্থিতিতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, March 20, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 26093

নতুন বছরকে ‌‘প্রতিরোধমূলক অর্থনীতি; উৎপাদন ও কর্মসংস্থান’ হিসেবে ঘোষণা দিলেন রাহবার
রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা ও ইসলামি বিপ্লবের রাহবার হযরত আয়াতুল্লাহ আল উযমা সাইয়েদ আলী খামেনেয়ী ফার্সি নববর্ষ 'নওরোজ' উপলক্ষে ইরানিদের পাশাপাশি বিশ্বের সব মুসলমানকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। নতুন বছর সবার জন্য সমৃদ্ধি, নিরাপত্তা ও কল্যাণ বয়ে আনবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। ফার্সি নববর্ষ উপলক্ষে এক বার্তায় তিনি এ আশা প্রকাশ করেন।

নতুন বছরকে ‌‘প্রতিরোধমূলক অর্থনীতি; উৎপাদন ও কর্মসংস্থান’ হিসেবে ঘোষণা দিলেন রাহবার

রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা ও ইসলামি বিপ্লবের রাহবার হযরত আয়াতুল্লাহ আল উযমা সাইয়েদ আলী খামেনেয়ী ফার্সি নববর্ষ 'নওরোজ' উপলক্ষে ইরানিদের পাশাপাশি বিশ্বের সব মুসলমানকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। নতুন বছর সবার জন্য সমৃদ্ধি, নিরাপত্তা ও কল্যাণ বয়ে আনবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। ফার্সি নববর্ষ উপলক্ষে এক বার্তায় তিনি এ আশা প্রকাশ করেন।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা নয়া ফার্সি বছর ১৩৯৬-কে "প্রতিরোধমূলক অর্থনীতি: উৎপাদন ও কর্মসংস্থান"-এর বছর হিসেবে নামকরণ করেছেন। বিগত ফার্সি বছরের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ফার্সি ১৩৯৫ সাল ভালো-মন্দ মিলিয়েই কেটেছে। তবে গত ফার্সি বছরটি যেসব কারণে ইরানি জাতির জন্য আনন্দের ছিল সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বছরজুড়েই ইরানিরা সম্মানিত হয়েছে। শত্রুরা ইরানি জাতির শক্তি ও মহত্ত্বের বিষয়টিকে মেনে নিয়েছে। 

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন,  প্রতিবেশী দেশগুলোসহ এ অঞ্চলে অনিরাপত্তা বিরাজ করলেও ইরানে নিরাপত্তা বজায় রয়েছে। বিশ্বের বর্তমান পরিস্থিতিতে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিগত বছরজুড়ে ইরানি জাতি স্থিতিশীল নিরাপত্তার অধিকারী ছিল। এ সময় তিনি জ্ঞান-বিজ্ঞান, ধর্ম-সংস্কৃতি ও ক্রীড়া ক্ষেত্রে ইরানি তরুণদের বিভিন্ন সাফল্যের প্রশংসা করেন।

তবে গত ফার্সি বছরে দেশের দরিদ্র মানুষেরা অর্থনীতিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নানা সমস্যা মোকাবেলা করেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ি বলেন, "আমি মানুষের অবস্থা সম্পর্কে অবহিত। জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি, বেকারত্ব, বৈষম্য, অসমতা ও নানা সামাজিক সমস্যার কারণে তারা যে কষ্ট পাচ্ছেন তা আমি উপলব্ধি করি।" 

এসব সমস্যা সমাধানের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, " এসব বিষয়ে আমাদের সবারই দায়বদ্ধতা রয়েছে এবং আমাদের সবাইকেই মহান আল্লাহ ও জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।"

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য