خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۱ آیان ۱۳۹۶

الاثنين ٣ صفر ١٤٣٩

Monday, October 23, 2017

বিজ্ঞাপন হার

প্রতিটি দিনই আশুরা আর প্রতিটি ভূমিই কারবালা হওয়ার দর্শন

মাহদাভিয়াত বিভাগ: ইমাম হুসাইন (আ.)-এর সংগ্রাম ছিল বিশ্বের ইতিহাসে ব্যাপকতম এবং বহুমাত্রিক আন্দোলন যার ব্যাপ্তি শুধুই যে আশুরার দিনের অন্যান্য মহান ঘটনাকে ছাপিয়ে গেছে তা-ই নয় বরং এই উক্তিটি উল্লেখ করাই যথার্থ যে, প্রতিটি দিনই আশুরা আর প্রতিটি ময়দানই কারবালা।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Thursday, April 20, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 26300

শেষ জামানায় ইমাম মাহদীর প্রতীক্ষাকারীদের চূড়ান্ত প্রতিযোগীতা
মাহদাভিয়াত বিভাগ: সৃষ্রি শুরু থেকেই মানুষ আল্লাহর ইবাদত বন্দেগী করে আসছে। কিন্তু একমাত্র শেষ জামানার মানুষরাই আল্লাহকে মনেপ্রাণে ভালবেসে তার ইবাদত করবে। সুতরাং আমাদেরকে ইমাম মাহদীর প্রতিক্ষাকারী হিসাবে অবশ্যই আল্লাহকে অঢেল ভালবেসে তার ইবাদ তকরতে হবে।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: শেষ জামানায় একদল বা অধিকাংশ মানুষ যেমন খারাপ পথে চলবে ঠিক তদ্রুপ তাদের পাশাপাশি একদল থাকবে যারা সব থেকে ভাল ঈমানদার হবে এবং সব থেকে ভার কাজ করবে।

সূরা মায়েদার ৫৪ নম্বর আয়াতে বলা হয়েছে:

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آَمَنُوا مَنْ يَرْتَدَّ مِنْكُمْ عَنْ دِينِهِ فَسَوْفَ يَأْتِي اللَّهُ بِقَوْمٍ يُحِبُّهُمْ وَيُحِبُّونَهُ أَذِلَّةٍ عَلَى الْمُؤْمِنِينَ أَعِزَّةٍ عَلَى الْكَافِرِينَ يُجَاهِدُونَ فِي سَبِيلِ اللَّهِ وَلَا يَخَافُونَ لَوْمَةَ لَائِمٍ ذَلِكَ فَضْلُ اللَّهِ يُؤْتِيهِ مَنْ يَشَاءُ وَاللَّهُ وَاسِعٌ عَلِيمٌ (54)

হে মুমিনগণ, তোমাদের মধ্যে যে নিজ ধর্ম থেকে ফিরে যাবে,(সে আল্লাহর কোনো ক্ষতিই করতে পারবে না) অচিরে আল্লাহ এমন সম্প্রদায় সৃষ্টি করবেন, যাদেরকে তিনি ভালবাসবেন এবং তারা তাঁকে ভালবাসবে। তারা মুসলমানদের প্রতি বিনয়-নম্র হবে এবং কাফেরদের প্রতি কঠোর হবে। তারা আল্লাহর পথে জেহাদ করবে এবং কোন তিরস্কারকারীর তিরস্কারে ভীত হবে না। এটি আল্লাহর অনুগ্রহ-তিনি যাকে ইচ্ছা দান করেন। আল্লাহ প্রাচুর্য দানকারী, মহাজ্ঞানী।

আগের আয়াতে কাফেরদের সাথে বন্ধুত্ব করার ব্যাপারে মুমিনদেরকে সতর্ক করে দেয়ার পর এ আয়াতে আল্লাহ হুঁশিয়ারি দিয়ে বলছেন- সাবধান, কাফেরদের সাথে বন্ধুত্ব করলে তোমরা ধর্ম থেকে বের হয়ে যাওয়া লোকদের অর্ন্তভুক্ত হবে। কিন্তু এটা ভেব না যে, নিরাপত্তার আশায় ও সাহায্য পাওয়ার আশায় তোমরা কাফেরদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে চললে আল্লাহর ধর্ম ক্ষতিগ্রস্ত হবে কিংবা এ ধর্ম ধ্বংস হয়ে যাবে। কারণ, এমন অনেকেই রয়েছেন যারা আল্লাহর প্রতি ঈমানে ও ভালবাসায় এবং তাঁর ধর্ম রক্ষায় এত নিবেদিত-প্রাণ যে তারা আল্লাহর পথে জিহাদ করতে ও জীবন দিতে সদা-প্রস্তুত। তারা কোনো ধরনের চোখরাঙানি ও তিরস্কারকে ভয় পায় না। আল্লাহ তাদের বৈশিষ্ট্যগুলো তুলে ধরতে গিয়ে বলছেন, তারা শত্রুদের মোকাবেলায় খুবই কঠোর এবং নিজেদের প্রতি দয়াদ্র ও পরস্পরের প্রতি বিনম্র। অনেক বর্ণনায় বা হাদিসে এটা এসেছে যে, এই আয়াত নাজেল হওয়ার সময় বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.) সালমান ফারসির (রা.) দিকে ইশারা করে বলেছিলেন: আল্লাহ কোরআনে যে দলটির এসব বৈশিষ্ট্য তুলে ধরেছেন তারা তোমার স্বদেশী তথা ইরানি বা ফার্স জাতি।

প্রকৃত মুসলমানরা অন্য মুসলমানের সঙ্গে ভদ্রতাপূর্ণ ও নম্র আচরণ করে এবং তারা পরস্পকে ভালবাসে গভীরভাবে, অন্যদিকে তারা মুসলমানদের শত্রুর ব্যাপারে খুবই কঠোর। অন্য কথায় মুসলমানদের ভালবাসা ও শত্রুতার মাত্রা আপেক্ষিক, চূড়ান্ত নয়।

আল্লাহর দয়া শুধু অর্থ ও পদের মধ্যে সীমিত নয়। আল্লাহর পথে জিহাদ করা ও ধর্মের ওপর অবিচল থাকার সুযোগ পাওয়াও আল্লাহর অন্যতম মহা-অনুগ্রহ।

621934

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য