خبرگزاری شبستان

چهارشنبه ۷ تیر ۱۳۹۶

الأربعاء ٤ شوّال ١٤٣٨

Wednesday, June 28, 2017

বিজ্ঞাপন হার

ইরানে জার্মান যুব দম্পতির ইসলাম গ্রহণ

মায়ারেফ বিভাগ: সম্প্রতি এক জার্মান যুব-দম্পতি ইরানের ধর্মীয় নগরী কোমে একজন প্রখ্যাত আলেমের উপস্থিতিতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, May 22, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 26575

ইমাম মাহদীর (আ.) বদৌলতে আসমান থেকে বরকত বর্ষিত হয়
মাহদাভিয়্যাত বিভাগ: এ পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকেই আল্লাহর পক্ষ থেকে একজন হুজ্জাত বা প্রতিনিধি আল্লাহর জমিনে রয়েছেন। কখনই আল্লাহর এ জমিন তার প্রতিনিধি শুণ্য হতে পারে না। হাদীসের বর্ণনা অনুযায়ী আল্লাহ তার হুজ্জাতের বদৌলতে আসমান থেকে বরকত ও বৃষ্টি বর্ষণ করেন।

ইমাম মাহদীর (আ.) বদৌলতে আসমান থেকে বরকত বর্ষিত হয়

মাহদাভিয়্যাত বিভাগ: এ পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকেই আল্লাহর পক্ষ থেকে একজন হুজ্জাত বা প্রতিনিধি আল্লাহর জমিনে রয়েছেন। কখনই আল্লাহর এ জমিন তার প্রতিনিধি শুণ্য হতে পারে না। হাদীসের বর্ণনা অনুযায়ী আল্লাহ তার হুজ্জাতের বদৌলতে আসমান থেকে বরকত ও বৃষ্টি বর্ষণ করেন।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: রাসূলের (সা.) পবিত্র বংশধর তথা আহলে বাইতের (আ.) অন্যতম মাসুম ইমাম হযরত ইমাম মাহদী (আ.); যিনি হলে বর্তমান যুগে থেকেই আল্লাহর পক্ষ থেকে সর্বশেষ হুজ্জাত বা প্রতিনিধি। অবশ্য তিনি মানুষের দৃষ্টির অন্তরালে রয়েছেন এবং আল্লাহর নির্দেশপ্রাপ্ত হলেই আবির্ভূত হবেন।

এ পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকেই আল্লাহর পক্ষ থেকে একজন হুজ্জাত বা প্রতিনিধি আল্লাহর জমিনে রয়েছেন। কখনই আল্লাহর এ জমিন তার প্রতিনিধি শুণ্য হতে পারে না। এ সম্পর্কে একাদশতম ইমাম হযরত ইমাম হাসান আসকারী (আ.) থেকে একটি হাদীস বর্ণিত হয়েছে; যা আমরা এখানে পাঠকদের জ্ঞাতার্থে তুলে ধরছি-

ইমাম হাসান আসকারী (আ.) বলেছেন:

إن الله تبارك و تعالى لم يخل الأرض منذ خلق آدم ع و لا يُخلّيها إلى أن تقوم الساعة من خجّة لله على خلقه، به يدفع البلاء عن أهل الأرض، و به ينزل الغيث، و به يخرج بركات الأرض.

 

নিশ্চয়ই আল্লাহ তায়ালা হযরত আদম (আ.) এর সময় থেকে কখনও এ পৃথিবীকে নিজের হুজ্জাত বা প্রতিনিধি শুণ্য রাখেন নি এবং কিয়ামত পর্যন্ত তা কখনও শুণ্য থাকবে না। তিনি তার হুজ্জাতের উপস্থিতির কারণে পৃথিবী থেকে বালা-মুসিবত দূর করেন এবং তার হুজ্জাতের উপস্থিতির কারণেই আসমান থেকে বরকত ও বৃষ্টি নাজিল করেন। (দ্র: কামালুদ্দিন ওয়া তামামুন নে’মাহ, ২য় খণ্ড, পৃ. ৩৮৪)

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য