خبرگزاری شبستان

چهارشنبه ۴ بهمن ۱۳۹۶

الأربعاء ٨ جمادى الأولى ١٤٣٩

Wednesday, January 24, 2018

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Tuesday, June 06, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 26691

মাহে রমজানে রাসূলের (সা.) প্রতি দরুদ পাঠের সওয়াব
মায়ারেফ বিভাগ: পবিত্র রমজান মাসে যে ব্যক্তি দরুদ শরিফ পাঠ করবে তার আমল নামা ভারী হবে; যেদিন অনেকের আমল নামা হালকা হবে। অর্থাৎ সে অধিক সওয়াবের অধিকারী হতে পারবে।

মাহে রমজানে রাসূলের (সা.) প্রতি দরুদ পাঠের সওয়াব

 

মায়ারেফ বিভাগ: পবিত্র রমজান মাসে যে ব্যক্তি দরুদ শরিফ পাঠ করবে তার আমল নামা ভারী হবে; যেদিন অনেকের আমল নামা হালকা হবে। অর্থাৎ সে অধিক সওয়াবের অধিকারী হতে পারবে।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: ইসলাম ধর্মে রাসূল (সা.) ও তার পবিত্র আহলে বাইতের (আ.) দরুদ শরিফ পাঠের উপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। দরুদ শরিফের অর্থ হচ্ছে – হে আল্লাহ! তুমি মুহাম্মাদ (সা.) ও তার বংশধরের প্রতি শান্তি বর্ষণ কর। আর মুহাম্মাদ (সা.) ও তার বংশধরের প্রতি শান্তি বর্ষণের মধ্য দিয়ে সাধারণ মানুষও আল্লাহর বিষেশ রহমতের অধিকারী হতে পারি।

একটি প্রশিদ্ধ হাদীসে বর্ণিত হয়েছে যে,

পবিত্র রমজান মাসে যে ব্যক্তি দরুদ শরিফ পাঠ করবে তার আমল নামা ভারী হবে; যেদিন অনেকের আমল নামা হালকা হবে। অর্থাৎ সে অধিক সওয়াবের অধিকারী হতে পারবে। ( দ্র: ওসায়েলুশ শিয়া, ১০ম খন্ড, পৃ. ৩১৪।

পবিত্র রমজান মাস হচ্ছে ইবাদত-বন্দেগীর মাস। এ মাসে যদি পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করা হয় এবং নামায ও মুস্তাহাব আমল সম্পাদন করা হয়, তাহলে তার সওয়াব বহুগুণ বৃদ্ধি পায়। এক কথায় বলা যায় যে, সাধারণ মাসের চেয়ে রমজান মাসের যে কোন ওয়াজিব ও মুস্তাহাব আমলের সওয়াব অনেক বেশি। তাই এ মাসে যদি কেউ দরুদ শরিফ পাঠ করে তাহলে স্বাভাবিকভাবে সওয়াবও অনেক বেশি হবে।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য