خبرگزاری شبستان

جمعه ۲۴ آذر ۱۳۹۶

الجمعة ٢٧ ربيع الأوّل ١٤٣٩

Friday, December 15, 2017

বিজ্ঞাপন হার

ইমাম মাহদীর(আ.) সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আমাদের দুনিয়া ও আখিরাতের কল্যাণ বয়ে আনে

মাহদাবিয়াত বিভাগ: আমাদের অন্তর যত বেশী ইমাম মাহদীর সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলবে ততবেশী তার উপস্থিতি আমাদের জন্য স্পষ্টতর হবে। আর এটা আমাদের দুনিয়া ও আখিরাতের উন্নতির জন্য খুবই উপকারী।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Friday, August 04, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 27008

ইমাম রেজার(আ.) দৃষ্টিতে ইমাম মাহদীর বিপ্লব
মাহদাভিয়াত বিভাগ: ইমাম রেজার(আ.) কাছে ইমাম মাহদীর বিপ্লব সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন: তোমরা আজ অনেক সুখে আছ। কিন্তু আমাদের কায়েম যখন বিপ্লব করবে তখন পরিস্থিতি অতি কঠিণ আকার ধারণ করবে। ইমাম মাহদী(আ.) শত্রুদেরকে দমন করতে এত বেশী চাপের মুখে পড়বেন যে তার ঠিকমত খাওয়া হবে না এবং তিনি সাধারণ পোশাক পরার সময় পাবেন না সর্বদা যুদ্ধের অবস্থায় থাকতে হবে।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: ইমাম রেজা (আ.) বলেছেন,
عن الرضا علیه السلام: «المهدی أعلم الناس و أحلم الناس و أتقی الناس و سخی الناس و أشجع الناس وأعبد الناس.» মাহদী হলেন, বুদ্ধিমান সহনশীল ও ধার্মিক মানুষ। তিনি সবার থেকে বেশী উদার, সাহসী এবং ধর্মপরায়ণ আবেদ।

মরহুম কুলাইনি তার উসুল কাফিতে বর্ণনা করেছেন যে রাইয়ান বিন সালত ইমাম রেজার(আ.) কাছে প্রশ্ন করল ইমাম মাহদী কেমন হবে, ইমাম বললেন: لَا يُرَي جِسْمُهُ وَ .  তিনি এমন এক ব্যক্তি যাকে দেখা যাবে না অর্থাৎ তিনি অন্তর্ধানে থাকবেন।

ইমাম রেজা(আ.) বলেছেন: ইমাম মাহদীর(আ.) অন্তর্ধানে থাকার একটি অন্যতম কারণ হচ্ছে যেন কোন জালিম শাসকের হাতে বায়াত না করতে হয়।

হাসান বিন আলী বিন ফাজ্জাল বলেন, ইমাম রেজা(আ. )বলেছেন: لَا يُرَي جِسْمُهُ وَ .

আমার সন্তান ইমাম মাহদী যখন অন্তর্ধানে থাকবে তখন শিয়ারা একজন পথপ্রদর্শকের অপেক্ষায় থাকবে যিনি তাদের হেদায়েত করবেন। প্রশ্ন করা হল কেন হে রাসূলের সন্তান! ইমাম বললেন: لِأَنَّ إِمَامَهُمْ يَغِيبُ عَنْهُمْ؛

যেহেতু তাদের ইমাম গাইবাতে তথা অন্তর্ধানে থাকবে। আবার প্রশ্ন করা হল কেন হে রাসূলের সন্তান! ইমাম বললেন: :  لِئَلَّا يَكُونَ فِي عُنُقِهِ لِأَحَدٍ بَيْعَةٌ إِذَا قَامَ بِالسَّيْفِ؛

এই জন্য যে যখন তিনি বিপ্লব করবেন তখন কোন জালিমের বাইয়াত তার ঘাড়ে থাকবে না।

ইমাম মাহদীর বাহ্যিক গঠন সম্পর্কে ইমাম রেজা(আ.) বলেন: তিনি যখন আবির্ভূত হবেন, তকণ তার বয়স অনেক হবে কিন্তু তার চেহারা ও শারীরিক গঠন পরিপূর্ণ যুবকদের মতই থাকেব।

ইমাম মাহদীর শক্তি সম্পর্কে ইমাম রেজা(আ.) বলেছেন: « قَوِیاً فِی بَدَنِهِ حَتَّی لَوْ مَدَّ یدَهُ إِلَی أَعْظَمِ شَجَرَةٍ عَلَی وَجْهِ الْأَرْضِ لَقَلَعَهَا وَ لَوْ صَاحَ بَینَ الْجِبَالِ لَتَدَکدَکتْ صُخُورُهَا ؛ ইমাম মাহদী এত বেশী শক্তিশালী হবেন যে, বিশাল বৃক্ষকে খুব সহজেই উপড়ে ফেলতে পারবেন এবং বিশাল পাহাড়কে হাতের এক ইশারায় চূর্নবিচুর্ণ করে ফেলতে পারবেন।

646355

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য