خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۴ تیر ۱۳۹۷

الاثنين ١٢ شوّال ١٤٣٩

Monday, June 25, 2018

বিজ্ঞাপন হার

আল্লাহর নিকট সবচেয়ে প্রিয় আমল কি?

মাহদাভিয়্যাত বিভাগ: আল্লাহর নৈকট্য ও সন্তুষ্টি লাভ প্রত্যেক বান্দার চুড়ান্ত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হওয়া উচিত। আর এ নৈকট্য ও সন্তুষ্টি অর্জন করা তখনই সহজ হবে যখন একজন বান্দা আল্লাহর পছন্দনীয় আমল সম্পাদন করবে।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, September 18, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 27344

প্রকৃত মুসলমানের পরিচয় কি?
মায়ারেফ বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের খ্যাতনামা ইসলামি গবেষক ও চিন্তাবিদ হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন মুহাম্মাদ বাকের আলাভী তেহরানি বলেছেন যে, একজন প্রকৃত ও ঈমান মুসলিম কখনও গালিগালাজ ও অকথ্য ভাষার মাধ্যমে নিজের মুখ ও ভাষাকে কলুষিত করে না।

প্রকৃত মুসলমানের পরিচয় কি?

মায়ারেফ বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের খ্যাতনামা ইসলামি গবেষক ও চিন্তাবিদ হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন মুহাম্মাদ বাকের আলাভী তেহরানি বলেছেন যে, একজন প্রকৃত ও ঈমান মুসলিম কখনও গালিগালাজ ও অকথ্য ভাষার মাধ্যমে নিজের মুখ ও ভাষাকে কলুষিত করে না।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন মুহাম্মাদ বাকের আলাভী তেহরানি বলেন: পবিত্র ইসলামের শিক্ষা অনুযায়ী গালিগালাজ বা অকথ্য ও অসৌজন্য কথাবার্তা জায়েজ না। আর এ ধরনের ভাষা ব্যবহারকারি ইসলামের দৃষ্টিতে গুনাহ বা পাপকর্ম সম্পন্নকারী ব্যক্তি হিসেবে চিহ্নিত। গালিগালাজ কখনও একজন মু’মিন ও ঈমানদার ব্যক্তির ভাষা হতে পারে না। কেননা আমাদের রাসূল (সা.) ছিলেন মানব জাতির জন্য সর্বোত্তম আদর্শ। তিনি আরবের কুরাইশ কাফেরদের অবর্ণনীয় অত্যাচার ও নির্যাতন সত্বেও আদৌ কোন দিন অকথ্য ভাষা প্রয়োগ করেন নি।

তিনি বলেন: একদা জনৈক ব্যক্তি ইমাম হাসান মুজতাবাকে (আ.) উদ্দেশ্য করে গালিগালাজ করে। এমতাবস্থায় ইমাম (আ.) মুসকি হেসে তাকে নিজের কাছে টেনে নিয়ে বলেন যে, ভাই তুমি হয়তো মুসাফির; যদি কোন সমস্যাতে থাক, তবে আমি তোমাকে সহায়তা করতে পারি। লোকটি ইমামের এমন মাধুর্যপূর্ণ ব্যবহারে খুশি হয়ে একজন ঈমানদার ব্যক্তিতে পরিণত হয়। সুতরাং কখনও গালিগালাজের জবাব গালিগালাজ দিয়ে দেয়া উচিত নয়। বরং উত্তম ও ভাল আচরণ অনেক সময় একজন বিপথগামী ব্যক্তিকে সুপথে আনতে পারে।

 

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য