خبرگزاری شبستان

جمعه ۲۶ آیان ۱۳۹۶

الجمعة ٢٨ صفر ١٤٣٩

Friday, November 17, 2017

বিজ্ঞাপন হার

রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করেছে মিয়ানমারের সেনারা: মানবাধিকার সংগঠন

আন্তর্জাতিক বিভাগ: রোহিঙ্গাদের জাতিগতভাবে নির্মূল করতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সদস্যরা তাদের নারী ও মেয়েদের ধর্ষণ করেছে। তাদের ওপর যৌন সহিংসতাও চালানো হয়েছে। আজ সোমবার আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচের (এইচআরডব্লিউ) এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, November 13, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 27715

মাওলা আলীর দৃষ্টিতে মাহদাভী পরিবার
মাহদাভিয়াত বিভাগ: আমিরুল মু’মিনিন হযরত আলী(আ.) বলেছেন, یَفرَحونَ لِفَرَحِنا و یَحزَنونَ لِحُزنِنا؛ আমাদের শিয়াদের বৈশিষ্ট্য হল তারা আমাদের আনন্দে আনন্দিত হয় আর আমাদের দু:খে দুক্ষিত হয়। এটা থেকে বো যায় যে একটি মাহদাভী পরিবারকে এমনভাবে জীবন-যাপন করতে হবে।

মাওলা আলীর দৃষ্টিতে মাহদাভী পরিবার 

মাহদাভিয়াত বিভাগ: আমিরুল মু’মিনিন হযরত আলী(আ.) বলেছেন, یَفرَحونَ لِفَرَحِنا و یَحزَنونَ لِحُزنِنا؛  আমাদের শিয়াদের বৈশিষ্ট্য হল তারা আমাদের আনন্দে আনন্দিত হয় আর আমাদের দু:খে দুক্ষিত হয়। এটা থেকে বো যায় যে একটি মাহদাভী পরিবারকে এমনভাবে জীবন-যাপন করতে হবে।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: সন্তানরা পিতা-মাতার কাছ থেকে সব কিছু শিক্ষা নেয়। সুতরাং সন্তানদেরকে যদি ঈমানদান, সত্যবাদী, সত্যপন্থি এবং আহলে বাইতের মহব্বতকারী হিসাবে গড়ে তুলতে হয় অবশ্যই প্রথমে পিতামাতাকে ঈমানদার সত্যবাদী ও আহলে বাইতের আশেক হতে হবে।

একজন প্রকৃত ইমাম মাহদীর অনুসারী এমনভাবে চলাফেরা করবে এবং তার আচরণ এমন হবে যে তার থেকে সমাজের সবাই শিক্ষা নিতে পারে।

যখন একটি পরিবারে আহলে বাইতের আনন্দে মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। সেই পরিবারের সন্তানরা আহলে বাইতের মহব্বতকারী হিসাবে গড়ে ওঠে। অনুরূপভাবে যখন আহলে বাইতের শোকে আজাদারি হয় তখন সেই পরিবারের সন্তানরা আহলে বাইতের ভালবাসা নিয়েই বড় হয়।

একটি মাহদাভি পরিবারের দায়িত্ব হচ্ছে সন্তানদেরকে ইসলামী বিধিবিধান শিক্ষা দেয়া, তাদেরকে দোয়া এবং কোরআন শিক্ষা দেয়া এবং আহলে বাইতের শোকে শোক আর আহলে বাইতের খুশিতে খুশি হওয়ার শিক্ষা দেয়া।

664242

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য