خبرگزاری شبستان

چهارشنبه ۴ بهمن ۱۳۹۶

الأربعاء ٨ جمادى الأولى ١٤٣٩

Wednesday, January 24, 2018

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Tuesday, November 14, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 27722

বারজাখ বলতে কি বুঝায়?
মায়ারেফ বিভাগ: বারজাখ বলতে মৃত্যুর পর কবরে শায়িত অবস্থা থেকে কেয়ামত পর্যন্ত সময়কে বারজাখ বলা হয়। হাদীসে বর্ণনা অনুযায়ী মানুষ মৃত্যুর পর যদি সে সৎ ও নেক হয়ে থাকে তবে বারজাখ থেকেই শান্তি অনুভব করবে এবং যদি পাপী হয় তবুও এ সময় থেকেই নিজ কর্মের প্রতিফল ভোগ করা শুরু করবে।

বারজাখ বলতে কি বুঝায়?

মায়ারেফ বিভাগ: বারজাখ বলতে মৃত্যুর পর কবরে শায়িত অবস্থা থেকে কেয়ামত পর্যন্ত সময়কে বারজাখ বলা হয়। হাদীসে বর্ণনা অনুযায়ী মানুষ মৃত্যুর পর যদি সে সৎ ও নেক হয়ে থাকে তবে বারজাখ থেকেই শান্তি অনুভব করবে এবং যদি পাপী হয় তবুও এ সময় থেকেই নিজ কর্মের প্রতিফল ভোগ করা শুরু করবে।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: ইমাম মাহদীর (আ.) আবির্ভাবের সুফল শুধুমাত্র পৃথিবীতে বসবাসকারী জীবিত ব্যক্তিরাই ভোগ করবে না। বরং এ সময় যে সব মু’মিন ব্যক্তিরা যারা নিজেদের জীবদ্দশাতে ইমাম মাহদীর (আ.) প্রতি বিশ্বাসপোষণ করত এবং তার আগমণের অপেক্ষায় ছিল, তারাও সুফল ও শান্তি অনুভব করবে।

এ সম্পর্কে ৬ষ্ঠ ইমাম জাফর সাদীক (আ.) থেকে একটি গুরুত্বপূর্ণ হাদীস বর্ণিত হয়েছে। এ হাদীসে ইমাম জাফর সাদীক (আ.) বর্ণনা করেছেন: ইমাম মাহদীর (আ.) আবির্ভাবের সময় বারজাখে বসবাসকারী মু’মিন ব্যক্তিরাও শান্তি ও স্বস্তি অনুভব করবে। সূত্র: গাইবাতে নু’মানি, পৃ. ১৬৭    

তবে এখানে স্মরণ রাখা জরুরী যে, ইমাম মাহদীর (আ.) আবির্ভাবের সময় নির্দিষ্ট করে বলা কারও পক্ষে সম্ভব নয়; বরং তা একমাত্র আল্লাহর ইচ্ছার উপর নির্ভরশীল। এ সম্পর্কে একটি হাদীসে বর্ণিত হয়েছে- মুফাজ্জাল বিন উমর বলেছেন যে, আমি ইমাম জাফর সাদীকের (আ.) নিকট প্রশ্ন করলাম যে, ইমাম মাহদীর (আ.) আবির্ভাবের সুনির্দিষ্ট কোন সময় কি উল্লেখ করা সম্ভব যাতে মানুষ সে সম্পর্কে জ্ঞাত হতে পারে? জবাবে তিনি বলেন: মহান আল্লাহ এক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট কোন সময় নির্ধারণ করেন নি এবং এ বিষয়টি মানুষের আড়ালে রেখেছেন।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য