خبرگزاری شبستان

سه شنبه ۲۲ آیان ۱۳۹۷

الثلاثاء ٥ ربيع الأوّل ١٤٤٠

Tuesday, November 13, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Thursday, November 30, 2017 নির্বাচিত সংবাদ : 27832

একটি মার্কিন সেনাকেও থাকতে দেয়া হবে না: ইরাক
ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশ্‌দ আশ-শাবি বলেছে, আরব এ দেশটি থেকে মার্কিন সেনাদেরকে অবশ্যই চলে যেতে হবে। হাশ্‌দ আশ-শাবির অন্যতম সিনিয়র কমান্ডার ও বাদ্‌র অর্গানাইজেশনের মহাসচিব হাদি আল-আমিরি এ কথা বলেছেন। হাশ্‌দ আশ-শাবি হচ্ছে বাদ্‌র অর্গানাইজেশনসহ বহু সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত একটি স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী।

একটি মার্কিন সেনাকেও থাকতে দেয়া হবে না: ইরাক

ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশ্‌দ আশ-শাবি বলেছে, আরব এ দেশটি থেকে মার্কিন সেনাদেরকে অবশ্যই চলে যেতে হবে। হাশ্‌দ আশ-শাবির অন্যতম সিনিয়র কমান্ডার ও বাদ্‌র অর্গানাইজেশনের মহাসচিব হাদি আল-আমিরি এ কথা বলেছেন। হাশ্‌দ আশ-শাবি হচ্ছে বাদ্‌র অর্গানাইজেশনসহ বহু সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত একটি স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী।

হাদি আল আমিরি অত্যন্ত স্পষ্ট করে বলেছেন, “ইরাকের মাটিতে একটি মার্কিন সেনাকেও থাকতে দেয়া হবে না।” ইরাকে মোতায়েন মার্কিন সেনাসংখ্যা নিয়ে যখন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ডের প্রশাসন এক ধোঁয়াশার সৃষ্টি করে রেখেছে তখন হাদি আল-আমিরি এ কথা বললেন।

ইরাকে তৎপর উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে হাশ্‌দ আশ-শাবি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। দায়েশ-বিরোধী লড়াইয়ে এ বাহিনীর যোদ্ধারা ইরাকের নিয়মিত সামরিক বাহিনীকে কাছ থেকে ব্যাপক সহযোগিতা করেছে।

অন্যদিকে, ইরাকে মোতায়েন মার্কিন সেনারা দায়েশ-বিরোধী লড়াইয়ের নাম বেসামরিক জনগণের ওপর হামলা চালিয়েছে এবং দেশটির গুরুত্বপূর্ণ সরকারি-বেসরকারি স্থাপনা ধ্বংস করেছে। শুধু তাই নয়, ইরাক ও সিরিয়ায় বার বার মার্কিন সেনারা সরকারি সেনাদের ওপর হামলা চালিয়েছে এবং প্রতিবারই তা ভুল বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছে। মার্কিন সেনাদের দায়েশ-বিরোধী লড়াইয়ে উল্লেখযোগ্য কোনো সফলতা চোখে পড়ে না। অথচ মার্কিন সেনারা ইরাক ও সিরিয়া -দুটি দেশেই স্থায়ীভাবে থাকার কৌশল করছে।

 

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য