خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۴ تیر ۱۳۹۷

الاثنين ١٢ شوّال ١٤٣٩

Monday, June 25, 2018

বিজ্ঞাপন হার

আল্লাহর নিকট সবচেয়ে প্রিয় আমল কি?

মাহদাভিয়্যাত বিভাগ: আল্লাহর নৈকট্য ও সন্তুষ্টি লাভ প্রত্যেক বান্দার চুড়ান্ত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হওয়া উচিত। আর এ নৈকট্য ও সন্তুষ্টি অর্জন করা তখনই সহজ হবে যখন একজন বান্দা আল্লাহর পছন্দনীয় আমল সম্পাদন করবে।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Saturday, January 13, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28152

মহানবীর(সা.) সাথে ইমাম মাহদীর(আ.) সাদৃশ্যতা
মাহদাভিয়াত বিভাগ: ইসলামের সর্বশ্রেষ্ঠ নবী ও মহামানব রাসূল (সা.) এর সাথে ইমাম মাহদীর বেশ কিছু বিষয়ে চমৎকার মিল পাওয়া যায়। মহানবী (সা.) যেমন সর্বশেষ নবী তেমনি ইমাম মাহদী ও সর্বশেষ ইমাম।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: ইসলামের সর্বশ্রেষ্ঠ নবী ও মহামানব রাসূল (সা.) এর সাথে ইমাম মাহদীর বেশ কিছু বিষয়ে চমৎকার মিল পাওয়া যায়। মহানবী (সা.) যেমন সর্বশেষ নবী তেমনি ইমাম মাহদী ও সর্বশেষ ইমাম।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: মহানবী (সা.)-এর শুভাগমন সম্পর্কে যেমন পূর্ববর্তী নবী বা রাসূলগণ ভবিষ্যৎ বাণী করে গেছেন, তেমনি ইমাম মাহদী (আ.) এর আগমন সম্পর্কেও মহানবী (সা.) এবং পূর্ববর্তী ইমামগণ বাণী রেখে গেছেন।

প্রতিশ্রুত ইমাম মাহদীকে সাধারণত: ‘ইমামুল আসর' বা নির্দিষ্ট সময়ের ইমাম এবং সাহিবুজ্জামান বা জামানার নেতা বলা হয়। জন্মের পর মহানবী (সা.) এর নামেই তার নাম রাখা হয়।

তিনি জন্মের পর থেকে তার শ্রদ্ধেয় পিতা ইমাম আসকারী (আ.) এর প্রত্যক্ষ ও বিশেষ তত্ত্বাবধানে ছিলেন। স্বৈরশাসকের হুমকীর কারণে ইমামে মাহদীর (আ.) জন্মের খবর গোপন রাখা হয়েছিল।

কারণ আব্বাসীয় শাসকরা ইমামের বংশ ধারকে ধ্বংস করে ফেলার জন্য প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে হন্যে হয়ে খুজছিল। বাড়ি বাড়ি তল্লাশী করে খুজে বের করার জন্য ওরা গোপন ঘাতক বাহিনী লেলিয়ে দিয়েছিল। তাই স্বয়ং আল্লাহ তা'আলা শিশু ইমামকে শয়তানের হাত থেকে রক্ষা ও সুরক্ষিত রেখেছিলেন।

উপনামের ক্ষেত্রে মিল: উপনাম, আবুল কাসেম। হযরত আবু সাঈদ খুদরী (রহ.) থেকে বর্ণিত হয়েছে হযরত মুহাম্মদ (সা.) বলেছেন “মাহদীর নাম আমার নামেই” অনুরূপ ভাবে হযরত আলী (আ.) থেকে বর্ণিত হয়েছে “মুহাম্মদ” মাহদীর নাম। (বোরহান ফি আলামতে মাহদী আখেরী যামান, মুত্তাকী হিন্দি, ৩য় অধ্যায় হাদিস নং ৮,৯)

মহানবীর(সা.) কোন ছায়া ছিল না, ইমাম মাহদীরও(আ.) কোন ছায়া থাকবে না। হাদিসে বর্নিত হয়েছে: «وَ لاَ یَکُونُ لَهُ ظِلٌّ» ইমাম মাহদীরও(আ.) কোন ছায়া থাকবে না।

চারিত্রিক মিল বা সাদৃশ্য: তার অবয়বের বর্ণনা দিতে গিয়ে উল্লেখ করা হয়েছে যে, তিনি চেহারা ও আচরণের দিক থেকে আল্লাহর রাসূলের (সা.) সাদৃশ্য। তার চেহার হচ্ছে উজ্জ্বল এবং তার ডান চিবুকে রয়েছে একটি কালো তিল, দাঁতগুলো পরস্পর হতে বিচ্ছিন্ন এবং তার চেহারায় একটি বিশেষ চিহ্ন রয়েছে...

নিস্পাপ মাসূম বা পবিত্রতার দিক থেকে সাদৃশ্য, এসম্পর্কে পবিত্র কোরআনের সূরা আহযাবের ৩৩ নং আয়াতে বর্নিত হয়েছে: « قَالَ اللهُ تَعَالَی: اِنَّمَا یُرِیدُ اللهُ لِیُذْهِبَ عَنْکُمُ الرِّجْسَ اَهْلَ الْبَیْتِ وَ یُطَهِّرَکُمْ تَطْهِیراً

আল্লাহ কেবল চান যে, হে আহলে বাইত! তোমাদের হতে সর্ব প্রকারের কলুষ দূরে রাখতে এবং তোমাদের সম্পূর্ণরূপে পবিত্র রাখতে।

আর ইমাম মাহদীও(আ.) আহলে বাইতের একজন অন্যতম সদস্য। যিনি শেষ জামানায় আরবির্ভূত হয়ে পৃথিবীকে ন্যায়নীতিতে পরিপূর্ণ করবেন।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য