خبرگزاری شبستان

جمعه ۳۱ فروردین ۱۳۹۷

الجمعة ٥ شعبان ١٤٣٩

Friday, April 20, 2018

বিজ্ঞাপন হার

কেন ইমাম হুসাইনকে হেদায়েতের আলো এবং মুক্তির তরী বলা হয়?

মাহদাভিয়াত বিভাগ: চতুর্থ হিজরির তৃতীয় শা’বান মানবজাতি ও বিশেষ করে, ইসলামের ইতিহাসের এক অনন্য ও অফুরন্ত খুশির দিন। কারণ, এই দিনে জন্ম নিয়েছিলেন বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.)’র প্রাণপ্রিয় দ্বিতীয় নাতি তথা বেহেশতী নারীদের নেত্রী হযরত ফাতিমা (সা.) ও বিশ্বাসীদের নেতা তথা আমীরুল মুমিনিন হযরত আলী (আ.)’র সুযোগ্য দ্বিতীয় পুত্র এবং ইসলামের চরম দূর্দিনের ত্রাণকর্তা ও শহীদদের নেতা হযরত ইমাম হুসাইন (আ.)।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Sunday, January 14, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28160

কানাডায় হিজাবি মেয়ের উপর হামলা
আন্তর্জাতিক বিভাগ: কানাডার প্রধানমন্ত্রী অন্টারিও, সেদেশে একটি হিজাবী ছাত্রির উপর হামলাকে কাপুরষোচিত এবং জঘণ্য বলে আখ্যায়িত করেছেন।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: টরন্টো পুলিশ ১১ বছর বয়েসী মুসলিম মেয়ের উপর হামলার বিষয়টি তদন্ত করছে যাকে স্কুলের পথে  বেশ কয়েকবার হামলা করে তার মাথা থেকে হিজাব সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে।

এই দেশে মুসলমানদের উপর আক্রমণের বিরুদ্ধে আরো পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য কানাডীয় সরকারের ওপর চাপ বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

টরন্টোর পুলিশ মুখপাত্রের মতে, একজন মুসলমান মেয়ে স্কুলে যাওয়ার সময় স্কুলের সামনে ভবঘুরে কিছু বখাটে ছেলেরা ১০ মিনিটের মধ্যে স্কার্প খুলে নেয়ার জন্য তার উপর হামলা চালায়।

খুলে তুমান ৬ষ্ট শ্রেণীতে পড়ে স্কুলে সাংবাদিকদের বলেন: আমি খুব ভয় পেয়েছিলাম এবং এতই আতঙ্কে ছিলাম যে, ঘোরের মধ্যে পড়ে গিয়েছিলাম।

তিনি বলেন: আমার উপর হামলার সাথে সাথে আমি চিতকার করলে সে ফিরে যায় এবং কিছুক্ষণ পর অঅবার ফিরে এসে আমার স্কার্প কাটতে থাকে।

টরন্টো স্কুল ইউনাইটেড বলেছে যে, প্রধানমন্ত্রী এটিকে "নৃশংস ও ভয়ঙ্কর কাজ বলে বর্ণনা করেছেন। তাতে আমরা অবাক হয়েছি।

কানাডার কিউবাক মসজিদে প্রাণঘাতী হামলায় ৬য় জন নিহত হয় সেই হামলার প্রথম বার্ষিকী পালনের প্রক্কালে এই হামলার  ঘটনা ঘটে।

কানাডার মুসলমানদের জাতীয় পরিষদ গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের সরকারকে গত সপ্তাহে ক্যুবেকের মসজিদে আক্রমণের দিনটিকে ২৯ শে জানুয়ারি ইসলামিক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে দিন হিসাবে ঘোষণা করার আহ্বান জানায়।

681972

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য