خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۷ خرداد ۱۳۹۷

الاثنين ١٤ رمضان ١٤٣٩

Monday, May 28, 2018

বিজ্ঞাপন হার

আমাদের কাজসমূহে সমস্যা সৃষ্টি হওয়ার মূল কারণ

মাহদাভিয়াত বিভাগ: কাজ যদি আল্লাহর জন্য করা হয় এবং অভিপ্রায় শুধু আল্লাহর জন্য হয়, তাহলে সাধারণত কাজে যে সকল আসে তা আর আসবে না। আমরা যখন অন্যের জন্য কাজ করি তখনই আমরা আমাদের কাজের সওয়াবকে আত্মাহুতি দেই।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Tuesday, January 23, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28246

ইমাম মাহদীর (আ.) দলে যোগদানের জন্য ইমাম সাদিকের উপদেশ
মাহদাভিয়াত বিভাগ: সূরা মায়েদার ৫১ নম্বর আয়াতে মহান আল্লাহ বলেছেন- يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آَمَنُوا لَا تَتَّخِذُوا الْيَهُودَ وَالنَّصَارَى أَوْلِيَاءَ بَعْضُهُمْ أَوْلِيَاءُ بَعْضٍ وَمَنْ يَتَوَلَّهُمْ مِنْكُمْ فَإِنَّهُ مِنْهُمْ إِنَّ اللَّهَ لَا يَهْدِي الْقَوْمَ الظَّالِمِينَ

 

মাহদাভিয়াত বিভাগ: সূরা মায়েদার ৫১ নম্বর আয়াতে মহান আল্লাহ বলেছেন- يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آَمَنُوا لَا تَتَّخِذُوا الْيَهُودَ وَالنَّصَارَى أَوْلِيَاءَ بَعْضُهُمْ أَوْلِيَاءُ بَعْضٍ وَمَنْ يَتَوَلَّهُمْ مِنْكُمْ فَإِنَّهُ مِنْهُمْ إِنَّ اللَّهَ لَا يَهْدِي الْقَوْمَ الظَّالِمِينَ

হে মুমিনরা! তোমরা ইহুদী ও খ্রিস্টানদেরকে বন্ধু এবং অভিভাবক হিসেবে গ্রহণ করো না। তারা একে অপরের বন্ধু, (তোমাদের বন্ধু নয়)। তোমাদের মধ্যে যে তাদেরকে বন্ধু বা অভিভাবক বানাবে, সে তাদেরই অন্তর্ভুক্ত। আল্লাহ জালেম সম্প্রদায়কে পথ দেখান না।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: যারা কাফেরদেরকে বন্ধু হিসেবে গ্রহণ করে তারা আল্লাহর বন্ধুত্বের তালিকা থেকে বাদ পড়ে এবং খোদায়ী হেদায়াত বা পথ-নির্দেশনা থেকে বঞ্চিত হয়।

সূরা নিসার ৮৯ নম্বর আয়াতে বলা হয়েছে, وَدُّوا لَوْ تَكْفُرُونَ كَمَا كَفَرُوا فَتَكُونُونَ سَوَاءً فَلَا تَتَّخِذُوا مِنْهُمْ أَوْلِيَاءَ حَتَّى يُهَاجِرُوا فِي سَبِيلِ اللَّهِ فَإِنْ تَوَلَّوْا فَخُذُوهُمْ وَاقْتُلُوهُمْ حَيْثُ وَجَدْتُمُوهُمْ وَلَا تَتَّخِذُوا مِنْهُمْ وَلِيًّا وَلَا نَصِيرًا

মোনাফিকরা চায় তারা যেমন কাফের, তোমরাও তেমনি কাফের হয়ে যাও যাতে তোমাদের ও তাদের মধ্যে কোন পার্থক্য না থাকে ৷ অতএব তাদের মধ্য থেকে কাউকে বন্ধ হিসাবে গ্রহণ কর না, যে পর্যন্ত না তারা তওবা এবং আল্লাহর পথে হিজরত না করে৷ এরপর যদি তারা বিমুখ হয় এবং কাফেরদের সথে সহযোগিতা অব্যাহত রাখে, তাহলে তাদেরকে পাকড়াও কর এবং যেখানে পাও হত্যা কর ৷

প্রকৃত ঈমানের নিদর্শন হচ্ছে, আল্লাহর পথে হিজরত৷ যে ধর্মের জন্য দেশ ত্যাগে রাজি হবে না সে প্রকৃত ঈমানদার নয়৷

ইমাম জাফর সাদিক(আ.) বলেছেন: «مَنْ سَرَّهُ أَنْ يَكُونَ مِنْ أَصْحَابِ الْقَائِمِ فَلْيَنْتَظِرْ وَ لْيَعْمَلْ بِالْوَرَعِ وَ مَحَاسِنِ الْأَخْلَاقِ وَ هُوَ مُنْتَظِرٌ فَإِنْ مَاتَ وَ قَامَ الْقَائِمُ بَعْدَهُ كَانَ لَهُ مِنَ الْأَجْرِ مِثْلُ أَجْرِ مَنْ أَدْرَكَهُ فَجِدُّوا وَ انتَظِروا؛ যারা ইমাম মাহদীর সৈনিক হিসাবে নিজেকে পেয়ে খুশি হয় এবং তাদের দায়িত্ব হচ্ছে প্রতীক্ষার অবস্থায় মুত্তাকি ও পরহেজগার হওয়া। যদি তার জীবিত অস্থায় ইমামের আবির্ভাব না হয় তাহলে সে ঐ ব্যক্তির ন্যায় মৃত্যুবরণ করল যে ইমাম মাহদীর সাক্ষাত পেয়েছে।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য