خبرگزاری شبستان

سه شنبه ۲۵ تیر ۱۳۹۸

الثلاثاء ١٤ ذو القعدة ١٤٤٠

Tuesday, July 16, 2019

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Wednesday, January 31, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28311

আইএস সন্ত্রাসীদের নতুনভাবে সংঘবদ্ধ করছে আমেরিকা: রাহবার
রাজনীতি বিভাগ: ইরানের ইসলামি বিপ্লবের মহামান্য রাহবার এবং ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা হযরত আয়াতুল্লাহ আল উযমা সাইয়েদ আলী খামেনেয়ী বলেছেন যে, আমেরিকা এখন আইএস তথা দায়েশ সন্ত্রাসীদেরকে নতুনভাবে সংঘবদ্ধ করে তাদেরকে আফগানিস্তানে পাঠাচ্ছে। এর মাধ্যমে তারা এ অঞ্চলে নিজেদের উপস্থিতিকে যৌক্তিক ও বৈধ হিসেবে তুলে ধরতে চায়। একইসঙ্গে ইহুদিবাদী ইসরাইলের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করতে চায় তারা।

আইএস সন্ত্রাসীদের নতুনভাবে সংঘবদ্ধ করছে আমেরিকা: রাহবার

রাজনীতি বিভাগ: ইরানের ইসলামি বিপ্লবের মহামান্য রাহবার এবং ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা হযরত আয়াতুল্লাহ আল উযমা সাইয়েদ আলী খামেনেয়ী বলেছেন যে, আমেরিকা এখন আইএস তথা দায়েশ সন্ত্রাসীদেরকে নতুনভাবে সংঘবদ্ধ করে তাদেরকে আফগানিস্তানে পাঠাচ্ছে। এর মাধ্যমে তারা এ অঞ্চলে নিজেদের উপস্থিতিকে যৌক্তিক ও বৈধ হিসেবে তুলে ধরতে চায়। একইসঙ্গে ইহুদিবাদী ইসরাইলের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করতে চায় তারা।

আজ (মঙ্গলবার) সকালে ফিকাহ শাস্ত্র সংক্রান্ত উচ্চতর ক্লাসে তিনি এ কথা বলেন। 

সর্বোচ্চ নেতা বলেন, গত কয়েক মাসে দায়েশ আফগানিস্তানে শত শত মানুষকে হত্যা করেছে। যারা দায়েশ সৃষ্টি করে সেটাকে সিরিয়া ও ইরাকের জনগণের ওপর জুলুম ও নির্যাতনের জন্য ব্যবহার করেছে তারাই আজ মধ্যপ্রাচ্যে পরাজিত হওয়ার পর দায়েশকে আফগানিস্তানে পাঠাচ্ছে।

তিনি বলেন, মার্কিন সমর্থিত সন্ত্রাসীদের কাছে শিয়া-সুন্নির কোনো পার্থক্য নেই। শিয়া-সুন্নিসহ বেসামরিক মানুষ তাদের টার্গেট। 

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, আমেরিকা এ অঞ্চলের মানুষের ভালো দেখতে চায় না। তারা এখানকার সরকার ও জাতিগুলোকে সব সময় ব্যস্ত রাখতে চায় যাতে তারা ইহুদিবাদের মোকাবিলা করতে না পারে।

তিনি বলেন, মার্কিন উপস্থিতিই আফগানিস্তানে অনিরাপত্তার মূল কারণ। গত ২০ বছর ধরে ধর্মের নামে যেসব হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে সেসবের পেছনে প্রত্যক্ষ অথবা পরোক্ষভাবে মার্কিনীদের হাত ছিল।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য