خبرگزاری شبستان

شنبه ۳۰ تیر ۱۳۹۷

السبت ٩ ذو القعدة ١٤٣٩

Saturday, July 21, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইমাম মাহদীর (আ.) সাথে আত্মিক সম্পর্ককে জোরদার করা জরুরী

মাহদাভিয়াত বিভাগ: ইমাম মাহদী(আ.) আল্লাহর হুজ্জাত তিনি আমাদের হেদায়াতের জন্য নির্ধারিত হয়েছেন। সুতরাং আমাদের জানতে হবে যে তিনি আমাদের কাছে কি চান এবং তার প্রতি আমাদের কর্তব্য কি।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, February 12, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28405

ইমাম মাহদী সম্পর্কে শিয়াদের শ্লোগানসমূহ
মাহদাভিয়াত বিভাগ: সৌদি আরবের শিয়ারা এবং ইরানের শিয়ারা ইমাম মাহদী(আ.) সম্পর্কে যে সকল শ্লোগান দিয়ে থাকেন তার একটি বিশ্লেষণ আমরা আশ শুমুসুল মুযিয়া গ্রন্থে পেয়ে থাকি।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: কবিতার মাধ্যমে একটি জাতির আধ্যাত্মিক ও সাংস্কৃতিক চিন্তার বহি:প্রকাশ ঘটে। আর এই মর্মে আশ শুমুসুল মুযিয়া গ্রন্থে «اًلشَّمسُ المُضیئَة» এই বিষয়ের উপর বিস্তারিত আলোকপাত করা হয়েছে।

ইমাম মাহদীর হুকুমত সম্পর্কে কুরআন ও হাদিসে অনেক বিষয় বর্ণিত হয়েছে। আল্লাহর সালেহ এবং সৎকর্মপরায়ণ বান্দাগণ হচ্ছেন মহানবী(সা.) ও তার পবিত্র আহলে বাইত(আ.)। আমি তো উপদেশের (তৌরাতের) পর যুবুরেও লিপিবদ্ধ করে দিয়েছিলাম যে, পৃথিবীর অধিকারী আমার সৎ বান্দা হবে।(আম্বিয়া-১০৫)

আমিরুল মু’মিনিন হযরত আলী(আ.) খলিফা হওয়ার পর সত্যকে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, কিন্তু কেন জনগণ তাকে পরিত্যাগ করেছিল, অথচ তারাও সত্যকে প্রতিষ্ঠার কথা বলত। মূল কারণ হচ্ছে তারা চাইত কেবল ঐ সত্য প্রতিষ্ঠিত হোক যা তাদের পক্ষে যাবে। সুতরাং যে সত্য তাদের স্বার্থ হাসিলে বাধা দিবে সে সত্য তারা প্রত্যাখ্যান করবে।

অতএব আসুন আমাদের যুবকদেরকে এই সকল অন্যায় পথ থেকে মুক্তি দিয়ে সত্য ও সঠিক পথে নিয়ে আসি তাহলেই ইমাম মাহদীর আবির্ভাব ত্বরান্বিত হবে।

মু’মিনদের দায়িত্ব হচ্ছে ইমাম মাহদীকে তার উপাধিসমূহ দিয়ে ডাকা যেমন: হুজ্জাত, কায়েম, মাহদী, সাহেবুল আমর, সাহেবুজ্জামান। মহানবীও বলেছেন: ইমাম মাহদীর নাম উচ্চারণ করা ঠিক নয় বরং তাকে মিম হে মিম দাল(م ح م د) বলতে হবে।

গ্রন্থ রচনার ক্ষেত্রে ইমাম মাহদীর নাম লেখা জায়েজ। তার বড় দলিল হচ্ছে মহানবীর যুগ থেকে আজ পর্যন্ত ইমাম মাহদীর নাম গ্রন্থে লেখা রয়েছে এবং কেউই তার বিরোধিতা করে নি।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য