خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۲ مهر ۱۳۹۷

الاثنين ١٤ المحرّم ١٤٤٠

Monday, September 24, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, March 12, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28595

মানব জাতির অন্তরের বসন্তকে জাগ্রত করতে নবী-রাসূলদের আগমণ
মায়ারেফ বিভাগ: বছরের সবচেয়ে উপযোগি ও কাংখিত সময়ের নাম হচ্ছে বসন্ত। এ সময় পরিবেশের সাথে সব কিছুই চাঙ্গা ও সতেজ হয়ে উঠে। মানুষের জীবনের যৌবনকালকে বসন্তকাল বলা হয়; কারণ এ সময় মানুষ সতেজ ও সবল থাকে।

মানব জাতির অন্তরের বসন্তকে জাগ্রত করতে নবী-রাসূলদের আগমণ

 

মায়ারেফ বিভাগ: বছরের সবচেয়ে উপযোগি ও কাংখিত সময়ের নাম হচ্ছে বসন্ত। এ সময় পরিবেশের সাথে সব কিছুই চাঙ্গা ও সতেজ হয়ে উঠে। মানুষের জীবনের যৌবনকালকে বসন্তকাল বলা হয়; কারণ এ সময় মানুষ সতেজ ও সবল থাকে।

 

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট:  মহান আল্লাহ এ পৃথিবীকে সৃষ্টি করে তাতে বসবাসের জন্য মানব জাতিকে পাঠিয়েছেন। আর মানুষ যাতে পৃথিবীতে এসে বিচ্যুত ও বিপথগামী না হয়, সে জন্য যুগে যুগে নবী ও রাসূলগণকে পাঠিয়েছে। এ সব নবীদের মধ্যে কাউকে তিনি শরিয়াত ও আসমানি কিতাব দিয়েছেন; আবার কাউকে পূর্ববর্তী নবীর শরিয়াত ব্যাখ্যা ও তা মানুষদের নিকট পৌছে দিবার দায়িত্ব দিয়েছেন।

আল্লাহ পবিত্র কোরআন ও অন্যান্য আসমানি কিতাবে মানুষকে জীবন পরিচালনা এবং এ পৃথিবীতে মানুষের করণীয় ও দায়িত্বসমূহ সম্পর্কে যথাযথ দিকনির্দেশনা দান করেছেন। তিনি শয়তানকে মানুষের সবচেয়ে ভয়ানক শত্রু হিসেবে অভিহিত করেছেন, যাতে মানুষ সতর্ক ও সচেতন থাকতে পারে এবং শয়তানের প্ররোচনার শিকার না হয়।

আল্লাহ পবিত্র কোরআনের সূরা জুমার ২ নং আয়াতে যুগে যুগে নবী-রাসূলদের প্রেরণের উদ্দেশ্যের প্রতি ইশারা করে বর্ণনা করেছেন,

هُوَ الَّذي بَعَثَ فِي الأُمِّيّينَ رَسولًا مِنهُم يَتلو عَلَيهِم آياتِهِ وَيُزَكّيهِم وَيُعَلِّمُهُمُ الكِتابَ وَالحِكمَةَ وَإِن كانوا مِن قَبلُ لَفي ضَلالٍ مُبينٍ.

‍তিনিই উম্মীদের মধ্যে তাদেরই মধ্য থেকে একজনকে রাসূলরূপে প্রেরণ করেছেন যে তাদের নিকট তাঁর আয়াতসমূহ আবৃত্তি করে, তাদেরকে পরিশুদ্ধ করে এবং গ্রন্থ (শরীয়তের বিধান) ও প্রজ্ঞা শিক্ষাদান করে; যদিও ইতঃপূর্বে তারা ঘোর বিভ্রান্তির মধ্যে ছিল।

সুতরাং মানুষকে খোদামুখী ও সত্য-ন্যায়ের পথে দিকনির্দেশনা দানের উদ্দেশ্যে যুগে যুগে নবী-রাসূলগণের আগমণ ঘটেছে। তারা মানুষের মন ও অন্তরে আশার আলো জালিয়েছেন এবং তাদের সত্বার মধ্যে খোদাপরিচিতির তৃষ্ণা জাগিয়েছেন।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য