خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۱۹ آذر ۱۳۹۷

الاثنين ٢ ربيع الثاني ١٤٤٠

Monday, December 10, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Tuesday, March 20, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28640

রজব মাসের ফজিলত ও তাৎপর্য
মায়ারেফ বিভাগ: পবিত্র রজব মাসের ফজিলত ও গুরুত্ব সম্পর্কে ৭ম ইমাম হযরত মুসা কাজীম (আ.) বলেছেন যে, রজব মহিমান্বিত মাস; আল্লাহ এ মাসের সওয়াবকে বর্ধিত এবং গুনাহকে হ্রাস করেন।

রজব মাসের ফজিলত ও তাৎপর্য

 

মায়ারেফ বিভাগ: পবিত্র রজব মাসের ফজিলত ও গুরুত্ব সম্পর্কে ৭ম ইমাম হযরত মুসা কাজীম (আ.) বলেছেন যে, রজব মহিমান্বিত মাস; আল্লাহ এ মাসের সওয়াবকে বর্ধিত এবং গুনাহকে হ্রাস করেন।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: পবিত্র রজব মাসের ফজিলত ও শ্রেষ্ঠত্বের কোন অন্ত নেই। আল্লাহ এ মাসের ভাল কাজের সওয়াবকে কয়েকগুন বাড়িয়ে দেন এবং মন্দ কাজের শাস্তিকে হ্রাস করেন। এ সম্পর্কে একটি তাৎপর্যপূর্ণ হাদীস ইমাম মুসা কাজীম (আ.) থেকে বর্ণিত হয়েছে। উক্ত হাদীসে ইমাম (আ.) বলেন,

 রজব মহিমান্বিত মাস; আল্লাহ এ মাসের সওয়াবকে বর্ধিত এবং গুনাহকে হ্রাস করেন।' আমরা যদি এ হাদীসের মর্মার্থকে বিবেচনা করি তাহলে বুঝতে পারব যে, আমরা কোন গুরুত্বপূর্ণ মাসকে অতিবাহিত করছি।

 বস্তুত: রজব মাস হচ্ছে রমজান মাসের প্রস্তুতিকাল। যদি কেউ রমজান মাসের পরিপূর্ণ ফজিলত ও বরকতকে অনুধাবন করতে চায়, তাহলে তাকে অবশ্যই রজব মাস থেকে সে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। হাদীসে কুদসিতে আল্লাহ তায়ালা বলেছে

"جعلت هذا الشهر حبلاً بینی و بین عبادی فمن اعتصم به وصل إلیّ

অর্থাৎ রজব মাস হচ্ছে মজবুত রশি; যে কেউ উক্ত রশিকে শক্তভাবে আকড়ে ধরবে, সে আমার নিকট পৌছাতে পারবে।' এটা থেকে বুঝা যায় রজব মাসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অসীম ও অনন্ত। কেননা স্বয়ং আল্লাহ তায়ালা এ মাসকে মজবুত রশির সাথে তুলনা করেছেন। যে রশির মাধ্যমে বান্দারা আল্লাহর নিকট পৌছাতে পারে। তবে এ রশিকে আকড়ে ধরতে হলে আমাদেরকে অবস্যই আত্মশুদ্ধি ও আত্ম সংশোধনের পথ বেছে নিতে হবে। ইসলামে ঘোষিত হালাল ও হারামকে যথাযথভাবে মেনে চলতে হবে। শুধুমাত্র ওয়াজিব ও ফরজ আমল করলেই যথেষ্ট নয়; বরং মুস্তাহাব আমলসমূহের প্রতিও মনোনিবেশ করতে হবে।

সুতরাং রজব মাসকে কোন অবস্থাতেই হাত ছাড়া করা উচিত হবে না। কিংবা অবহেলা ও উদাসীনতার মধ্য দিয়ে এ মাসের ফজিলতপূর্ণ দিনগুলিও অতিবাহিত করা আদৌ সমীচীন নয়। কেউ কেউ হয়তো এমন ধারণা করতে পারে যে, রমজান মাস তো এখনও অনেক দূরে। আমরা রমজান মাস আসার কিছু দিন পূর্বে নিজেকে প্রস্তুত করে নিব। কিন্তু কোন বিবেকবান ও জ্ঞানসম্পন্ন ব্যক্তি কখনও এমন ধারণা করতে পারে না। হয়তো এমনও হতে পারে রমজান মাস আসার আগেই কেউ এ পৃথিবী ত্যাগ করে চলে গেল। এখানে রজব মাসকে রমজান মাসের প্রবেশমুখ বলা হয়েছে এ অর্থে যে, আত্মিকভাবে রমজান মাসে প্রবেশ করা; না শারিরিকভাবে। এমনও হতে পারে যে, কেউ শারিরিকভাবে রমজান মাসে প্রবেশ করেছে; কিন্তু আত্মিক ও মানসিকভাবে রমজান মাসের জন্য প্রস্তুত হতে পারি নি।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য