خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۱۹ آذر ۱۳۹۷

الاثنين ٢ ربيع الثاني ١٤٤٠

Monday, December 10, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Monday, April 16, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28785

সিরিয়ায় মার্কিন আগ্রাসন সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে: নাসরুল্লাহ
আন্তর্জাতিক বিভাগ: লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, সিরিয়ায় মার্কিন আগ্রাসন সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে এবং সিরিয়ায় হামলা চালিয়ে একটি লক্ষ্যও অর্জন করতে পারে নি আমেরিকা ও তার দুই মিত্র ব্রিটেন ও ফ্রান্স।

সিরিয়ায় মার্কিন আগ্রাসন সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে: নাসরুল্লাহ

 

আন্তর্জাতিক বিভাগ: লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, সিরিয়ায় মার্কিন আগ্রাসন সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে এবং সিরিয়ায় হামলা চালিয়ে একটি লক্ষ্যও অর্জন করতে পারে নি আমেরিকা ও তার দুই মিত্র ব্রিটেন ও ফ্রান্স।

রোববার রাতে লেবাননের রাজধানী বৈরুতে সমবেত জনতার উদ্দেশে এক টেলিভিশন ভাষণে তিনি বলেন, সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে সিরিয়ার জনগণ ও সেনাবাহিনীর মনোবল ভেঙে দেয়ার লক্ষ্যে এ আগ্রাসন চালিয়েছে পাশ্চাত্য। কিন্তু এর ফল হয়েছে উল্টো। আগ্রাসনের ফলে সিরিয়ার সরকার ও জনগণের মনোবল আরো শক্তিশালী ও গতিশীল হয়েছে।

সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ বলেন, পক্ষান্তরে সেনাবাহিনীর অগ্রাভিযানের মুখে থাকা উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোকে চাঙ্গা করতে যদি এ হামলা হয়ে থাকে তাহলে আমি বলব মার্কিন আগ্রাসনের ফলে জঙ্গীরা হতাশ হয়ে পড়েছে।

হিজবুল্লাহ প্রধান বলেন, সিরিয়ার সেনাবাহিনী জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযানে আরো সাফল্য অর্জন করলে পশ্চিমা শক্তিগুলো এ ধরনের আগ্রাসনের পুনরাবৃত্তি করতে পারে।

সিরিয়ায় পশ্চিমা শক্তিগুলোর বিমান হামলার কারণ ব্যাখ্যা করে সাইয়্যেদ নাসরুল্লাহ বলেন, আমেরিকান সেনারা ভালো করে জানে সিরিয়ায় স্থল অভিযান পরিচালনা করা অতো সহজ নয়। তাই তারা স্থল হামলার পথে পা বাড়ায়নি।

লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনে মহাসচিব বলেন, সিরিয়ার দুমায় কথিত রাসায়নিক হামলার অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই বলেই আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স তড়িঘড়ি করে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। তিনি বলেন, সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ সংস্থার তদন্তকারীরা পৌঁছামাত্র এ আগ্রাসন চালানো হয়েছে। কারণ, পাশ্চাত্য জানে, তদন্ত শেষ হলে কোনো প্রমাণ পাওয়া যাবে না।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য