خبرگزاری شبستان

چهارشنبه ۲ خرداد ۱۳۹۷

الأربعاء ٩ رمضان ١٤٣٩

Wednesday, May 23, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইমাম মাহদীর নামে কোরআন খতম দেয়ার ফজিলত

মাহদাভিয়াত বিভাগ: রমজান মাসের ইফতার, সেহেরি এবং শবে কদরে আমাদের প্রধান দোয়া হচ্ছে ইমাম মাহদীর আবির্ভাবের জন্য দোয়া করা। আমরা যদি এটা করতে পারি তাহলে ইমাম মাহদীর প্রকৃত সৈনিক হতে পারব এবং আমাদের ম্যেধ তার জন্য ত্যাগ স্বীকার করার মনোভাব গড়ে উঠবে।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Wednesday, April 18, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 28798

প্রতিরক্ষায় ইরান কারও সাথে আপোষ করবে না: রুহানি
রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন যে, তার দেশ প্রতিরক্ষা শক্তির উন্নয়ন এবং বিদেশী আগ্রাসন মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় সমরাস্ত্র তৈরিতে কারো অনুমোতি নিবে না।

প্রতিরক্ষায় ইরান কারও সাথে আপোষ করবে না: রুহানি

 

রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন যে, তার দেশ প্রতিরক্ষা শক্তির উন্নয়ন এবং বিদেশী আগ্রাসন মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় সমরাস্ত্র তৈরিতে কারো অনুমোতি নিবে না।

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান আজ (বুধবার) জাতীয় সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালন করছে। এ উপলক্ষে ইসলামি বিপ্লবের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম ইমাম খোমেনী (র)’র মাজারের কাছে বিশাল কুচকাওয়াজ ও সামরিক খাতে অর্জিত সাফল্য নিয়ে প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

সকালে অনুষ্ঠিত কুচকাওয়াজে অংশ নেন ইরানের সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন শাখার সদস্যরা। এতে ইরানের অত্যাধুনিক অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম প্রর্দশন করা হচ্ছে।

এরইমধ্যে সেনা সমাবেশ ও কুচকাওয়াজে ভাষণ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইরানের সেনা, বিমান, নৌ ও ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র শীর্ষ পর্যায়ের কমান্ডাররা।    

অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় প্রেসিডেন্ট রুহানি ইরানের শান্তিপূর্ণ সামরিক কর্মসূচির কথা তুলে ধরে বলেন, কোনো দেশে আগ্রাসন চালানোর ইচ্ছা তার দেশের নেই এবং কারো স্বার্থ ক্ষতিগ্রস্ত করার চিন্তা করে না ইরান। তিনি বলেন, প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে আন্তরিক ও ভাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ক চায় তেহরান।  

প্রেসিডেন্ট রুহানি জোর দিয়ে বলেন, প্রতিরক্ষা শক্তি গড়ে তোলার সমস্ত অধিকার ইরানের রয়েছে এবং নিজের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় অস্ত্র বানানোর ক্ষেত্রে তেহরান কারো অনুমতির জন্য বসে থাকবে না। পাশাপাশি তিনি মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে অস্ত্রের বন্যা বইয়ে দেয়া এবং এ অঞ্চলের সম্পদ হাতিয়ে নেয়ার জন্য পশ্চিমা দেশগুলোকে হুঁশিয়ার করেন।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য