خبرگزاری شبستان

پنج شنبه ۲۸ تیر ۱۳۹۷

الخميس ٧ ذو القعدة ١٤٣٩

Thursday, July 19, 2018

বিজ্ঞাপন হার

প্রতি নামাযের পর ইমাম মাহদীর (আ.) আবির্ভাবের জন্য দোয়া

মাহদাভিয়্যাত বিভাগ: ইমাম মাহদী (আ.) ইমামতিধারার সর্বশেষ মাসুম ইমাম। যিনি আল্লাহর পক্ষ থেকে শেষ জামানায় আবির্ভূত হবেন এবং সারা বিশ্বে ন্যায় ও ইনসাফের হুকুমত প্রতিষ্ঠা করবেন। তাই এ ইমামের আবির্ভাবের জন্য আল্লাহর দরবারে দোয়া করা আমাদের প্রত্যেকের ঈমানি দায়িত্ব।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Tuesday, June 26, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 29116

কেন ইমাম মাহদীকে নেয়ামতের বসন্ত বলা হয়?
মাহদাভিয়াত বিভাগ: তিনি মহানবীর মত আমল ও কাজ করবেন, কেননা মহানবীর তার পূর্বের জাহেলিতাকে ধ্বংস করে ঈমান ও নুরানিয়াত প্রতিষ্ঠাত করেছিলেন। ইমাম মাহদীও তার পূর্বের সকল অন্যায় অত্যাচার ও জাহেলিয়াতকে দূর করে সত্য ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করবেন।

কেন ইমাম মাহদীকে নেয়ামতের বসন্ত বলা হয়?

 

মাহদাভিয়াত বিভাগ: তিনি মহানবীর মত আমল ও কাজ করবেন, কেননা মহানবীর তার পূর্বের জাহেলিতাকে ধ্বংস করে ঈমান ও নুরানিয়াত প্রতিষ্ঠাত করেছিলেন। ইমাম মাহদীও তার পূর্বের সকল অন্যায় অত্যাচার ও জাহেলিয়াতকে দূর করে সত্য ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করবেন।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: বসন্তের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে সকল কিছুকে নতুন করে তোলা এবং সকল ক্লান্তি ও অবসাদকে দূর করা। ইমাম মাহদী(আ.) হচ্ছেন ইসলাম জান পরান তিনিই হচ্ছেন বিশ্বের প্রকৃত বসন্ত। তার আগমনে গোটা বিশ্ব ফুলে ফলে এবং আশা আনন্দে ভরে যাবে।

«یصنع كما صنع رسول الله (ص) یهدم ما كان قبله كما هدم رسول الله(ص) امر الجاهلیه و یستانف الاسلام جدیدا بعد ان یهدم ما كان قبله

الغیبة نعمانی باب 13،‌ 234.

ইমাম বাকির (আ.) থেকে আরো বর্ণিত হয়েছে : যখন আমাদের কায়েম আবির্ভূত হবে ও বিপ্লব করবে তখন পৃথিবীর যে কোন অঞ্চলে যে ব্যক্তিকেই প্রতিনিধি হিসাবে প্রেরণ করবে তখন তাকে বলবে : তোমার হাতের তালুতেই তোমার কর্মসূচী ও প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা আছে। যখনই তোমার ক্ষেত্রে কোন ব্যাপার ঘটবে যা তুমি বুঝ নি এবং যার হিকমতও তোমার জানা নেই তখন তুমি তোমার হাতের তালুর দিকে তাকাবে এবং সেখানে যে নির্দেশনা বিদ্যমান আছে তদনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। (নুমানী প্রণীত গাইবাত, পৃ. ৩১৯)

ইমাম মাহদী (আ.)-এর হুকুমত সমগ্র বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত হবে। যার ফলে এমন কোন জনপদ থাকবে না যেখানে মহান আল্লাহর একত্ব এবং মহানবী (সা.)-এর রিসালাতের সাক্ষ্য দেয়া হবে না।

ইবনে আরবি, শারানী এবং অন্যান্য ব্যক্তির মত কতিপয় সুন্নি আলেমও বিশ্বাস করেন যে ইমাম মুহম্মদ ইবনে হাসান আল-আসকারীই হলেন হযরত মাহদী (আ.) । তারা তাঁর নাম ও নসব (বংশ পরিচিতি) স্পষ্ট উল্লেখ করেছেন এবং তাঁকে তারা জীবিত ও গায়েব বলে বিশ্বাস করেন।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য