خبرگزاری شبستان

پنج شنبه ۲۸ تیر ۱۳۹۷

الخميس ٧ ذو القعدة ١٤٣٩

Thursday, July 19, 2018

বিজ্ঞাপন হার

প্রতি নামাযের পর ইমাম মাহদীর (আ.) আবির্ভাবের জন্য দোয়া

মাহদাভিয়্যাত বিভাগ: ইমাম মাহদী (আ.) ইমামতিধারার সর্বশেষ মাসুম ইমাম। যিনি আল্লাহর পক্ষ থেকে শেষ জামানায় আবির্ভূত হবেন এবং সারা বিশ্বে ন্যায় ও ইনসাফের হুকুমত প্রতিষ্ঠা করবেন। তাই এ ইমামের আবির্ভাবের জন্য আল্লাহর দরবারে দোয়া করা আমাদের প্রত্যেকের ঈমানি দায়িত্ব।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Sunday, July 08, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 29128

সমাজে ইসলামি সংস্কৃতির বিস্তার সাধান আমাদের ঈমানি দায়িত্ব
মসজিদ বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের মসজিদ বিষয়ক সাংস্কৃতিক পরিষদসমূহের কেন্দ্রীয় শুরার প্রধান হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন ডা: আরজানি বলেছেন যে, একজন মুসলমান হিসেবে সামাজে ইসলামি সংস্কৃতির বিস্তার সাধান আমাদের প্রত্যেকের ঈমানি দায়িত্ব।

সমাজে ইসলামি সংস্কৃতির বিস্তার সাধান আমাদের ঈমানি দায়িত্ব

 

মসজিদ বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের মসজিদ বিষয়ক সাংস্কৃতিক পরিষদসমূহের কেন্দ্রীয় শুরার প্রধান হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন ডা: আরজানি বলেছেন যে,  একজন মুসলমান হিসেবে সামাজে ইসলামি সংস্কৃতির বিস্তার সাধান আমাদের প্রত্যেকের ঈমানি দায়িত্ব।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: ইরানের মসজিদ বিষয়ক সাংস্কৃতিক পরিষদসমূহের কেন্দ্রীয় শুরার প্রধান হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন ডা: আরজানি গতকাল মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে বলেন: সমাজে ইসলামি সংস্কৃতির ব্যাপক প্রচার ও প্রসার এবং পশ্চিমা সাংস্কৃতির আগ্রাসন মোকাবেলার উদ্দেশ্যে বিগত দু’দশক পূর্বে মসজিদ বিষয়ক সাংস্কৃতিক পরিষদসমূহ গঠিত। বর্তমানে ইরানের প্রায় ৩২ হাজার মসজিদে মসজিদ বিষয়ক সাংস্কৃতিক পরিষদ সক্রিয় রয়েছে। প্রতি দিন এ সব পরিষদের ধর্মীয় কাযক্রমে লাখ লাখ কিশোর ও কিশোরী অংশগ্রহণ করছে। তাই এ পরিষদ বর্তমানে একটি বিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হয়েছে।

তিনি বলেন: ইরানের ৩০টি প্রদেশে ছড়িয়ে থাকা হাজার হাজার মসজিদ বিষয়ক সাংস্কৃতিক পরিষদসমূহে প্রায় দুই লাখের বেশি যুবক ও যুবতি সক্রিয় সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে। তারা এ সব পরিষদের তত্বাবধানে সক্রিয় থেকে ইসলামি শিক্ষা ও সংস্কৃতির চর্চার পাশাপাশি মসজিদসমূহের নানাবিধ ধর্মীয় কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করছে, যা তাদের নৈতিক শিক্ষার উন্নতিতে বিশেষ সহায়ক ভূমিকা রাখছে।

হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন ডা: আরজানি বর্তমান সময়ে পশ্চিমা সংস্কৃতির কুফল থেকে যুবসমাজকে রক্ষায় ইসলামি সংস্কৃতির বিস্তার সাধনের উপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করে বলেন: যদি আমরা যুবকদের মাঝে ইসলামি শিক্ষা ও সংস্কৃতির বিস্তার না ঘটায় তাহলে তারা দিন দিন নৈতির অবক্ষয়ের দিকে ধাবিত হবে।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য