خبرگزاری شبستان

شنبه ۲۴ آذر ۱۳۹۷

السبت ٧ ربيع الثاني ١٤٤٠

Saturday, December 15, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Tuesday, July 17, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 29174

ফিলিস্তিন নিয়ে ট্রাম্পের শয়তানি স্বপ্ন কখনো বাস্তবায়িত হবে না: সর্বোচ্চ নেতা
রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা ও ইসলামি বিপ্লবের রাহবার আয়াতুল্লাহ আল উজমা সাইয়েদ আলী খামেনেয়ি বলেছেন, ফিলিস্তিনিদের বিষয়ে ট্রাম্প শয়তানি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন এবং তা কখনই বাস্তবায়িত হবে না।

ফিলিস্তিন নিয়ে ট্রাম্পের শয়তানি স্বপ্ন কখনো বাস্তবায়িত হবে না: সর্বোচ্চ নেতা

 

রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা ও ইসলামি বিপ্লবের রাহবার আয়াতুল্লাহ আল উজমা সাইয়েদ আলী খামেনেয়ি বলেছেন, ফিলিস্তিনিদের বিষয়ে ট্রাম্প শয়তানি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন এবং তা কখনই বাস্তবায়িত হবে না।

গতকাল (সোমবার) ইরানের হজ বিষয়ক কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে আয়াতুল্লাহ আল উজমা সাইয়েদ আলী খামেনেয়ি বলেছেন, মার্কিনীরা ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের বিষয়ে যে শয়তানি পরিকল্পনা নিয়েছে সেটাকে 'ডিল অব সেঞ্চুরি' নামে অভিহিত করা হচ্ছে। কিন্তু তাদের জেনে রাখা উচিত আল্লাহর রহমতে  এই শয়তানি পরিকল্পনা কখনই বাস্তবায়িত হবে না। মার্কিন ষড়যন্ত্র সত্ত্বেও ফিলিস্তিন ইস্যু মানুষের মন থেকে মুছে যাবে না এবং বায়তুল মুকাদ্দাসই ফিলিস্তিনের রাজধানী হিসেবে থাকবে।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ি বলেন, ফিলিস্তিনি জাতি মার্কিন ষড়যন্ত্র রুখে দেবে এবং ফিলিস্তিনিদের প্রতি মুসলমানদের সমর্থন থাকবে। তিনি বলেন, কোনো কোনো মুসলিম নামধারী সরকার যারা বাস্তবে ইসলাম ধর্ম মানে না তারা নিজেদের মূর্খতা, অজ্ঞতা ও লোভের কারণে আমেরিকার জন্য বলিতে পরিণত হয়েছে। কিন্তু আল্লাহর ইচ্ছায় মুসলিম উম্মাহ ও ফিলিস্তিনি জাতিই বিজয় লাভ করবে। একদিন ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড থেকে অবৈধ ইহুদিবাদী সরকারের শেকড় উপড়ে যাবে।

ইসরাইলের গোয়েন্দা ওয়েব সাইট দেবকাফাইল জানিয়েছে, ট্রাম্প যে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন তাতে পশ্চিম তীরের অর্ধেক ভূমি এবং গাজা উপত্যকা নিয়ে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের কথা বলা হয়েছে। তবে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব হবে সীমিত পর্যায়ের। এছাড়া ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের ফিরে আসা বা অধিকৃত ভূমি ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিগুলোকে আর কখনই গুরুত্ব দেওয়া হবে না।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য