خبرگزاری شبستان

شنبه ۲۴ آذر ۱۳۹۷

السبت ٧ ربيع الثاني ١٤٤٠

Saturday, December 15, 2018

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Wednesday, July 18, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 29181

হজ্ব মুসলিম জাহানের ঐক্য ও সংহতির প্রতীক: ইরান
মায়ারেফ বিভাগ: ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের হজ্ব মিশনের প্রধান হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম কাজি আসগার বলেছেন যে, হজ্ব ইসলামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ও ফরজ আমল। প্রতি বছর হজ্ব উপলক্ষে সারা বিশ্ব থেকে লাখ লাখ মুসলিম নর-নারী মক্কা ও মদীনায় উপস্থিত হয়, তাই হজ্ব মুসলিম জাহানের ঐক্য ও সংহতির প্রতীক হিসেবে বিবেচিত।

হজ্ব মুসলিম জাহানের ঐক্য ও সংহতির প্রতীক: ইরান

 

মায়ারেফ বিভাগ: ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের হজ্ব মিশনের প্রধান হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম কাজি আসগার বলেছেন যে, হজ্ব ইসলামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ও ফরজ আমল।  প্রতি বছর হজ্ব উপলক্ষে সারা বিশ্ব থেকে লাখ লাখ মুসলিম নর-নারী মক্কা ও মদীনায় উপস্থিত হয়, তাই হজ্ব মুসলিম জাহানের ঐক্য ও সংহতির প্রতীক হিসেবে বিবেচিত।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: ইরানের হজ্ব মিশনের প্রধান হযরত হুজ্জাতুল ইসলাম কাজি আসগার  আজ বুধবার তেহরানে ইরানি হাজিদের মক্কার উদ্দেশ্যে প্রথম হজ্ব ফ্লাইট উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে বলেন: ইসলাম ঐক্য ও সংহতির ধর্ম। আমরা যদি ইসলামি বিধানাবলী বিশ্লেষণ করি, তাহলে দেখা যাবে যে, প্রতিটি বিধানের অন্যতম দর্শন বা শিক্ষা হচ্ছে ঐক্য ও সংহতি। ইসলাম আমাদেরকে ঐক্যের শিক্ষা দেয়। ইসলামে প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামায আদায়ের আদেশ করা হয়েছে। সাথে সাথে এ আদেশও দেয়া হয়েছে যে, মসজিদে যেয়ে এবং জামাতের সাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নামায আদায় করতে বলা হয়েছে এবং এ কাজের বিশেষ সওয়াব ও ফজিলতের প্রতিও ইশারা করা হয়েছে। অর্থাৎ মানুষ জামাতের সাথে নামায আদায়ের মাধ্যমে এক কাতারে দাড়িয়ে এক সাথে রুকু ও সেজদার মাধ্যমে আল্লাহর প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করবে এবং সম্মিলিতভাবে এ আনুগত্য প্রকাশের মাধ্যমে নিজেদের মধ্যে ঐক্য ও সম্প্রীতির শিক্ষারও বহি:প্রকাশ ঘটাবে।

তিনি আরও বলেন: কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্য ওহাবি চক্র হজ্বকে মুসলিম উম্মাহর মাঝে বিভেদ ও অনৈক্য সৃষ্টির হাতিয়ারে পরিণত করেছে। সৌদি ওহাবি মুফতিরা প্রচার করছে যে, ইরান হজ্বকে রাজনীতিতে পরিণত করতে চায়। কিন্তু বিগত তিন দশকে ইরানি হাজিদের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করলে; এটা প্রমাণীত হবে যে, ইরানি হাজিরা হযরত মুহাম্মাদের (সা.) নির্দেশিত ও পূর্ণাঙ্গ উদযাপন করছে। কিন্তু ওহাবিরা চায় হজ্বের বিধানকে শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিকতার মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখে হাজিদের মধ্যে নিজেদের ভ্রান্ত মতাদর্শের বিস্তার ঘটাতে।

 

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য