خبرگزاری شبستان

پنج شنبه ۲ اسفند ۱۳۹۷

الخميس ١٦ جمادى الثانية ١٤٤٠

Thursday, February 21, 2019

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Wednesday, August 15, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 29373

জিলহজ্ব মাসের প্রথম দশ দিনের বিশেষ নামায
মায়ারেফ বিভাগ: আরবী মাসের মধ্যে অন্যতম ফজিলতপূর্ণ মাস হচ্ছে জিলহজ্ব মাস, এটি আরবী মাসের সর্বশেষ মাস। আর এ মাসেই মুসলিম উম্মাহর সবচেয়ে বড় ও বিশ্বজনীন আমলের নাম হচ্ছে পবিত্র হজ্ব। এ ছাড়া এ মাসে আরও অনেক ফজিলতপূর্ণ আমল রয়েছে।

জিলহজ্ব মাসের প্রথম দশ দিনের বিশেষ নামায

 

মায়ারেফ বিভাগ: আরবী মাসের মধ্যে অন্যতম ফজিলতপূর্ণ মাস হচ্ছে জিলহজ্ব মাস, এটি আরবী মাসের সর্বশেষ মাস। আর এ মাসেই মুসলিম উম্মাহর সবচেয়ে বড় ও বিশ্বজনীন আমলের নাম হচ্ছে পবিত্র হজ্ব। এ ছাড়া এ মাসে আরও অনেক ফজিলতপূর্ণ আমল রয়েছে।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: হাদীসের বর্ণনা অনুযায়ী জিলহজ্ব মাস শুরু হলে রাসূল (সা.) ও মাসুম ইমামগণ বিশেষ কিছু আমল সম্পন্ন করতেন। এছাড়া অনেক সাহাবি ও আওলিয়াবর্গ জিলহজ মাসে আল্লাহর ইবাদত বন্দেগী ও আধ্যাত্মিকতায় নিয়োজিত থাকতেন।

জিলহজ্ব মাসে গুরুত্বপূর্ণ আমল ও ইবাদতসমূহের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে এ মাসের প্রথম দশ দিন মাগরিব ও এশার নামাযের মধ্যবর্তী সময়ে দু’রাকাত নফল নামায আদায় করা। এ নামাযের নিয়ম হচ্ছে জিলহজ্ব মাসের প্রথম দিন থেকে দশম দিন পর্যন্ত প্রতিদিন মাগরিব নামায শেষে এ দু’রাকাত নামায আদায় করতে হবে। নামাযের নিয়ম হচ্ছে প্রথম রাকাতে সূরা ফাতেহার পর সূরা তওহীদ পাঠ করা এবং সূরা তওহীদ শেষে নিচের আয়াতটি পাঠ করা,

«وَ واعَدْنا مُوسى‏ ثَلاثِینَ لَیْلَةً وَ أَتْمَمْناها بِعَشْرٍ فَتَمَّ مِیقاتُ رَبِّهِ أَرْبَعِینَ لَیْلَةً وَ قالَ مُوسى‏ لِأَخِیهِ هارُونَ اخْلُفْنِی فِی قَوْمِی وَ أَصْلِحْ وَ لا تَتَّبِعْ سَبِیلَ الْمُفْسِدین»

অত:পর দ্বিতীয় রাকাতটি প্রথম রাকাতের ন্যায় সম্পন্ন করা।

এ নামাযের বিশেষ ফজিলত ও গুরুত্ব তখনই বুঝা যায় যখন ইমাম মুহাম্মাদ বাকের (আ.) স্বীয় সন্তান ইমাম জাফর সাদীককে (আ.) উদ্দেশ্য করে বলেন: হে আমার পুত্র, কখনই জিলহজ্ব মাসের প্রথম দশদিন মাগরিব ও এশার নামাযের মধ্যবর্তী দু’রাকাত নফল নামায পড়তে ভুলবে না। এ নামায পাঠের মাধ্যমে তুমি যদি হজ্বে গমণ করতে নাও পর তবুও হজ্বের সওয়াব অর্জন করতে পারবে।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য