خبرگزاری شبستان

دوشنبه ۲۲ مهر ۱۳۹۸

الاثنين ١٥ صفر ١٤٤١

Monday, October 14, 2019

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Tuesday, August 21, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 29425

ইরান কখনও আগ্রাসী নীতিতে বিশ্বাস করে না
রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, ইরান কখনও আগ্রাসী নীতি বিশ্বাস করে না। বিগত কয়েক দশকে ইরানের এ নীতি বিশ্ববাসীর নিকট প্রমাণীত হয়েছে।

ইরান কখনও আগ্রাসী নীতিতে বিশ্বাস করে না

 

রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, ইরান কখনও আগ্রাসী নীতি বিশ্বাস করে না। বিগত কয়েক দশকে ইরানের এ নীতি বিশ্ববাসীর নিকট প্রমাণীত হয়েছে।

আজ (মঙ্গলবার) প্রতিরক্ষা শিল্প বিষয়ক এক অনুষ্ঠানে ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, আমেরিকার প্রতি ইরানের কোনো ধরণের আস্থা নেই এবং ইউরোপ, চীন ও কানাডাও আমেরিকাকে বিশ্বাস করে না।

রুহানি বলেন, আমেরিকা যাতে ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়াতে না পারে সে লক্ষ্যে একটি আইন পাস করেছে মার্কিন কংগ্রেস। কারণ তারা এটা ভালো করেই জানে যে, ইরান হচ্ছে শক্তিধর একটি দেশ। ইরানে হামলা করলে এজন্য তাদেরকে চড়া মূল্য দিতে হবে। 

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, শত্রুরা যাতে হামলার দুঃসাহস দেখাতে না পারে সে লক্ষ্যে ইরান সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সশস্ত্র বাহিনীকে সব সময় এ ধরণের প্রস্তুতি অক্ষুন্ন রাখতে হবে। তবে ইরান সব সময় প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের পক্ষে। প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে প্রস্তুতির উদ্দেশ্য হচ্ছে টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠা।

রুহানি আরও বলেছেন, প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে উপযুক্ত প্রস্তুতি ও শক্তি না থাকার অর্থ হলো যুদ্ধের দিকে যাওয়া এবং শত্রুকে আগ্রাসনের সুযোগ দেওয়া।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য