خبرگزاری شبستان

جمعه ۳ خرداد ۱۳۹۸

الجمعة ٢٠ رمضان ١٤٤٠

Friday, May 24, 2019

বিজ্ঞাপন হার

ইরাকের রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব

ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা শহরের ইরানি কনস্যুলেটে দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ (শনিবার) ভোরে তেহরানে নিযুক্ত ইরাকি রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। এ সময় ইরানি কনস্যুলেটের নিরাপত্তা রক্ষার ব্যাপারে ইরাকি নিরাপত্তা কর্মীদের অবহেলার প্রতিবাদ জানানো হয়।

নির্বাচিত সংবাদ

মতামতজরিপ  :   Saturday, September 8, 2018 নির্বাচিত সংবাদ : 29446

আমেরিকাকে অবস্যই সিরিয়া ত্যাগ করতে হবে: রুহানি
রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, সিরিয়া থেকে আমেরিকাকে সরে যেতে হবে। কারণ সিরিয়া সংকটের মূলে রয়েছে আমেরিকা। গতকাল (শুক্রবার) সিরিয়া বিষয়ক ত্রিদেশীয় শীর্ষ সম্মেলনের সমাপনী ভাষণে তিনি একথা বলেন।

আমেরিকাকে অবস্যই সিরিয়া ত্যাগ করতে হবে: রুহানি

রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, সিরিয়া থেকে আমেরিকাকে সরে যেতে হবে। কারণ সিরিয়া সংকটের মূলে রয়েছে আমেরিকা। গতকাল (শুক্রবার) সিরিয়া বিষয়ক ত্রিদেশীয় শীর্ষ সম্মেলনের সমাপনী ভাষণে তিনি একথা বলেন।

রুহানি আরও বলেছেন, যারা বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন দেয় তাদের লক্ষ্য পূরণ হবে না। তবে ইরান, রাশিয়া ও তুরস্ক অভিন্ন লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে। আর তাহলো সিরিয়া ও গোটা মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা। এর আগে বৈঠকের শুরুতে বিস্তারিত বক্তব্য তুলে ধরেন রুহানি। সে সময় তিনি ছয়টি বিষয়ের ওপর কথা বলেন।

তিনি বলেন, সিরিয়া সংকট সমাধানের জন্য যেকোনো রাজনৈতিক আলোচনায় অবশ্যই সিরিয়ার ভৌগোলিক অখণ্ডতা ও স্বাধীনতাকে সম্মান জানাতে হবে। সিরিয়ায় বিশেষকরে ইদলিবে সব সন্ত্রাসী গোষ্ঠী নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত সন্ত্রাসবাদ বিরোধী সংগ্রাম অব্যাহত রাখতে হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক সমাজের কর্মসূচিতে শরণার্থীদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও দেশ পুনর্গঠনে সহযোগিতার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে হবে। সিরিয়ায় আমেরিকার অবৈধ উপস্থিতি ও হস্তক্ষেপ অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। কারণ অবৈধ উপস্থিতি ও হস্তক্ষেপ সিরিয়ায় অনিরাপত্তা বজায় রেখেছে।  

ইরানের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, সিরিয়ার জনগণ ও সরকারের বিরুদ্ধে ইহুদিবাদী ইসরাইলের তৎপরতা ও দখলদারিত্ব প্রতিদিনই বাড়ছে। আন্তর্জাতিক সমাজের দায়িত্ব হলো তা মোকাবেলা করা। একইসঙ্গে তিনি সিরিয়া সংকট সমাধানে ইরান, তুরস্ক ও রাশিয়ার চেষ্টা ও অবদানের সম্মান জানিয়ে দেশটিতে পরিপূর্ণ শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় পারস্পরিক সহযোগিতা ও সমন্বয় অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান।

২০১১ সালের মার্চ থেকে সিরিয়ায় আমেরিকা ও তার মিত্র দেশগুলোর মদদে সহিংসতা ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে সিরিয়া সরকারের অনুমতি ছাড়াই সেদেশে সেনা মোতায়েন রেখেছে আমেরিকা।

মন্তব্য

বইপরিচিতি  :
 ভিডিও সংবাদ:
অন্যান্যলিংক :
আমাদের সম্পর্কে

মন্তব্য