নির্বাচিত সংবাদ : 29448
মতামতজরিপ  :    ۱۳۹۷/۶/۱۷ - ۱۸:۵۵

ইরান ও ইরাকের মধ্যে সম্পর্কের ব্যাঘাত ঘটাতে ইরানি কনস্যুলেটে হামলা
রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান ও ইরাক হচ্ছে মুসলিম জাহানের মধ্যে দু’টি ভ্রাতৃপ্রতীম ও প্রতিবেশি দেশ। এ দু’টি দেশের মধ্যে রয়েছে শত শত বছরের ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক সম্পর্ক। সম্প্রতি বছর গুলোতে ইরাকের স্বৈরশাসক সাদ্দামের পতনের পর এ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার হয়েছে।

ইরান ও ইরাকের মধ্যে সম্পর্কের ব্যাঘাত ঘটাতে ইরানি কনস্যুলেটে হামলা

রাজনীতি বিভাগ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান ও ইরাক হচ্ছে মুসলিম জাহানের মধ্যে দু’টি ভ্রাতৃপ্রতীম ও প্রতিবেশি দেশ। এ দু’টি দেশের মধ্যে রয়েছে শত শত বছরের ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক সম্পর্ক। সম্প্রতি বছর গুলোতে ইরাকের স্বৈরশাসক সাদ্দামের পতনের পর এ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার হয়েছে।

শাবিস্তান বার্তা সংস্থার রিপোর্ট: গতকাল  শুক্রবার রাতে একদল দুবৃত্ত ইরাকের বসরা নগরীতে ইরানি কনস্যুলেট অফিসে হামলা চালিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি ইরাকের বসরা শহরে ইরানি কনস্যুলেটে বর্বরোচিত হামলার এ ঘটনার হোতাদের চরম শাস্তি দাবি করেছেন।  এক বিবৃতিতে বলেছেন, ইরাকের সব কূটনৈতিক স্থাপনার নিরাপত্তা রক্ষা করার দায়িত্ব বাগদাদ সরকারের। কাজেই বাগদাদকে অবিলম্বে ইরানি কনস্যুলেটে হামলাকারী ও এর পেছনে ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার ও বিচার নিশ্চিত করতে হবে।

একইসঙ্গে তিনি ইরাক ও ইরানের সুসম্পর্ক নস্যাত করার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ হোতাদের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

ইরাকে অর্থনৈতিক সংকট, দুর্নীতি, বেকারত্ব এবং পানি ও বিদ্যুৎ সংকটের প্রতিবাদে গত পাঁচদিন ধরে বসরা শহরে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভকারীরা গত কয়েকদিনে ইরাকের বেশ কিছু সরকারি স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে।  গত পাঁচদিনের সংঘর্ষে বসরায় অন্তত নয় জন নিহত ও বহু লোক হয়েছে।

তবে শুক্রবার রাতে হঠাৎ করে দুর্বৃত্তরা ইরানি কনস্যুলেটে হামলা চালিয়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানা যায়নি। তবে ইরানের আধা সরকারি বার্তা সংস্থা ইসনা জানিয়েছে, হামলার ঘটনায় কনস্যুলেট কর্মীদের কোনো ক্ষতি হয়নি।

বিশ্লেষকদের ধারণা ইরান ও ইরাকের মধ্যে সাম্প্রতিক বছরগুলো যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠিত হয়েছে তা ভণ্ডুল করার জন্য একটি মহল উঠেপড়ে লেগেছে। এক সময় ইরাকের বিস্তীর্ণ এলাকা দখলকারী উগ্র তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইরানের সহযোগিতাকে কেন্দ্র করে তেহরান ও বাগদাদের মধ্যে এই সুসম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। আর সুসম্পর্ক নষ্ট করার হীন উদ্দেশ্যেই হয়তো গতরাতে ইরাকের বসরা নগরীতে ইরানি কনস্যুলেট অফিসে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তচক্র।

ইরান ও ইরাক ও দু’টি দেশের জাতির মধ্যে ঐতিহাসিক ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক সম্পর্ক রয়েছে। ইরাকের ধর্মীয় নগরীতে শিয়া মাযহাবের মাসুম ইমামগণের পবিত্র মাজার জিয়ারতের জন্য প্রতিদিন হাজার হাজার ইরানি ইরাক সফর করে থাকেন। প্রতি বছর ইমাম হুসাইনের (আ.) পবিত্র চেহলুম উপলক্ষে প্রায় কয়েক লক্ষ ইরানি ইরাকের কারবালা ও নাজাফ প্রায় এক শত কিমি পায়ে হেটে ইমাম হুসাইনের মাজার জিয়ারত করে থাকে ইরানের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা।